সেনবাগে যুবকের আত্নহত্যা

attohottaনোয়াখালী প্রতিনিধি:
শ্বশুড় বাড়ির লোকজনের সাথে মোবাইলফোনে কথাকাটাকাটি করে নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবদুল ওহাবের বড় ছেলে র

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার মজিরখিল গ্রামের জাহিদ ছারওয়ার প্রকাশ লিটন (৪০) নামের এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। লিটন সেনবাগ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবদুল ওহাবের বড় ছেলে। সে শ্বশুড় বাড়ির লোকজনের সাথে মোবাইলফোনে কথাকাটাকাটি জের ধরে অভিমান করে আতœহত্যা করে। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার দুপুরে ।পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও লোকজনের অনুরোধে ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ গতকাল শুক্রবার দাফন করা হয়েছে।

স্থানীয় লোকজন জানায়, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবদুল ওহারের ছেলে জাহিদ ছারওয়ার লিটন গত কয়েক বছর আগে পার্শ্ববর্তী আটিয়া বাড়ি গ্রামে বিয়ে করে। পারিবারিক বিসয় নিয়ে গত বুধবার দুপুরে শ্বশুড় বাড়ির লোকজনের সাথে মোবাইলফোনে কথাকাটাকাটি হয়। এই কথা কাটাকাটির জের ধরে জাহিদ ছারওয়ার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে নিজ বাড়িতে পরিবারের সবার অজান্তে বসত ঘরে ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে সেনবাগ থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবু তাহেরের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।