জাতীয় নেতৃবৃন্দকে হত্যার ষড়যন্ত্র ছাত্রসমাজ মেনে নেবে না : শিবির সভাপতি

unna--medবাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি আবদুল জব্বার বলেন, আওয়ামী অবৈধ সরকার নানা প্রহসনের মাধ্যমে জাতীয় নেতৃবৃন্দকে হত্যার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। জাতীয় নেতৃবৃন্দকে এভাবে হত্যার চেষ্টা করে সরকার পার পাবে না। ছাত্রসমাজ এই ষড়যন্ত্র মেনে নেবে না।

তিনি আজ ছাত্রশিবির টাঙ্গাইল শহরের দায়িত্বশীল সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। স্থানীয় এক মিলনায়তনে আয়োজিত এ সমাবেশে টাঙ্গাইল শহর শাখার দায়িত্বশীল নির্বাচন সম্পন্ন হয়। সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় শিক্ষা সম্পাদক মোবারক হোসেন। আরও বক্তব্য রাখেন শহর শাখার সদ্য বিদায়ী সভাপতি মো. আল আমিন ও জেলা জামায়াতের আমীর অধ্যাপক আব্দুল হামিদ।

শিবির সভাপতি বলেন, আওয়ামী সরকার মনে করেছিল তারা দ্রুততার সাথে একের পর এক ইসলামী নেতৃবৃন্দকে হত্যা করে জামায়াতকে নেতৃত্ব শূন্য করবে। কিন্তু তাদের সে চেষ্টা সফল হয়নি। তবুও তারা আবারও জামায়াত নেতাদের হত্যার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। বাংলাদেশের মানুষ সরকারের কোন অন্যায় আচরণ মেনে নিতে রাজি নয়। শহীদ আব্দুল কাদের মোল্লা শাহাদাৎবরণ করে এ দেশের ছাত্রজনতাকে আন্দোলনের পথে উজ্জীবিত করে গেছেন। সরকারের পক্ষ থেকে এ ধরণের ষড়যন্ত্র অব্যাহত থাকলে তার ফল ষড়ন্ত্রের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রত্যেক কেই জনগণ একদনি বুঝিয়ে দেবে।

তিনি বলেন, মাওলানা নিজামীসহ জামায়াত নেতৃবৃন্দ কতটা নিষ্কলুষ চরিত্রের অধিকারী তা আপামর জনসাধারণ জানে। জনপ্রিয় এই নেতাদের মানুষ মুক্ত দেখতে চায়। এই নেতাদের অন্যায়ভাবে ফাঁসিকাষ্ঠে ঝোলানোর অপচেষ্টাকারী নেতাদের জনতার আদালতে ঠিকই একদিন ঝুলতে হবে। রাষ্ট্রীয় ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাস কীভাবে মোকাবেলা করতে হয়, তা ছাত্রজনতা ভালোভাবেই জানে। আন্দোলনের মাধ্যমেই সরকারকে কঠোর জবাব দেয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, ছাত্রশিবিরকে শত চেষ্টা করেও সরকার দমাতে পারেনি। আমরা দৃঢ়তার সাথে বলছি, সরকারের সকল অন্যায়ের জবাব দিতে ছাত্রসমাজ প্রস্তুত। এখন সরকার যত বাড়াবাড়ি করবে, ছাত্রজনতা ততই বিক্ষুব্দ হতে বাধ্য হবে। বাংলাদেশ ষোল কোটি মানুষের, গুটিকতক সন্ত্রাসী ও ষড়যন্ত্রকারীদের নয়। আওয়ামী খুনী, সন্ত্রাসীদের কাছে বাংলাদেশকে ইজারা দেয়া হয়নি। অন্যায় আঘাত আসলে পাল্টা জবাব দেয়ার মানসিকতা নিয়েই ছাত্রজনতা প্রস্তুত রয়েছে।

তিনি সরকারকে সকল ষড়যন্ত্র থেকে সরে এসে জামায়াত-শিবির নেতৃবৃন্দকে মুক্তি দিতে এবং সরকারের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে আন্দোলনের জন্য প্রস্তুত থাকতে ছাত্রজনতার প্রতি আহ্বান জানান।

জাতীয় নেতৃবৃন্দকে হত্যার ষড়যন্ত্র ছাত্রসমাজ

মেনে নেবে না- শিবির সভাপতি

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি আবদুল জব্বার বলেন, আওয়ামী অবৈধ সরকার নানা প্রহসনের মাধ্যমে জাতীয় নেতৃবৃন্দকে হত্যার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। জাতীয় নেতৃবৃন্দকে এভাবে হত্যার চেষ্টা করে সরকার পার পাবে না। ছাত্রসমাজ এই ষড়যন্ত্র মেনে নেবে না।

তিনি আজ ছাত্রশিবির টাঙ্গাইল শহরের দায়িত্বশীল সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। স্থানীয় এক মিলনায়তনে আয়োজিত এ সমাবেশে টাঙ্গাইল শহর শাখার দায়িত্বশীল নির্বাচন সম্পন্ন হয়। সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় শিক্ষা সম্পাদক মোবারক হোসেন। আরও বক্তব্য রাখেন শহর শাখার সদ্য বিদায়ী সভাপতি মো. আল আমিন ও জেলা জামায়াতের আমীর অধ্যাপক আব্দুল হামিদ।

শিবির সভাপতি বলেন, আওয়ামী সরকার মনে করেছিল তারা দ্রুততার সাথে একের পর এক ইসলামী নেতৃবৃন্দকে হত্যা করে জামায়াতকে নেতৃত্ব শূন্য করবে। কিন্তু তাদের সে চেষ্টা সফল হয়নি। তবুও তারা আবারও জামায়াত নেতাদের হত্যার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। বাংলাদেশের মানুষ সরকারের কোন অন্যায় আচরণ মেনে নিতে রাজি নয়। শহীদ আব্দুল কাদের মোল্লা শাহাদাৎবরণ করে এ দেশের ছাত্রজনতাকে আন্দোলনের পথে উজ্জীবিত করে গেছেন। সরকারের পক্ষ থেকে এ ধরণের ষড়যন্ত্র অব্যাহত থাকলে তার ফল ষড়ন্ত্রের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রত্যেক কেই জনগণ একদনি বুঝিয়ে দেবে।

তিনি বলেন, মাওলানা নিজামীসহ জামায়াত নেতৃবৃন্দ কতটা নিষ্কলুষ চরিত্রের অধিকারী তা আপামর জনসাধারণ জানে। জনপ্রিয় এই নেতাদের মানুষ মুক্ত দেখতে চায়। এই নেতাদের অন্যায়ভাবে ফাঁসিকাষ্ঠে ঝোলানোর অপচেষ্টাকারী নেতাদের জনতার আদালতে ঠিকই একদিন ঝুলতে হবে। রাষ্ট্রীয় ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাস কীভাবে মোকাবেলা করতে হয়, তা ছাত্রজনতা ভালোভাবেই জানে। আন্দোলনের মাধ্যমেই সরকারকে কঠোর জবাব দেয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, ছাত্রশিবিরকে শত চেষ্টা করেও সরকার দমাতে পারেনি। আমরা দৃঢ়তার সাথে বলছি, সরকারের সকল অন্যায়ের জবাব দিতে ছাত্রসমাজ প্রস্তুত। এখন সরকার যত বাড়াবাড়ি করবে, ছাত্রজনতা ততই বিক্ষুব্দ হতে বাধ্য হবে। বাংলাদেশ ষোল কোটি মানুষের, গুটিকতক সন্ত্রাসী ও ষড়যন্ত্রকারীদের নয়। আওয়ামী খুনী, সন্ত্রাসীদের কাছে বাংলাদেশকে ইজারা দেয়া হয়নি। অন্যায় আঘাত আসলে পাল্টা জবাব দেয়ার মানসিকতা নিয়েই ছাত্রজনতা প্রস্তুত রয়েছে।

তিনি সরকারকে সকল ষড়যন্ত্র থেকে সরে এসে জামায়াত-শিবির নেতৃবৃন্দকে মুক্তি দিতে এবং সরকারের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে আন্দোলনের জন্য প্রস্তুত থাকতে ছাত্রজনতার প্রতি আহ্বান জানান।