রাবির সহিংসতায় মানবাধিকার চেয়ারম্যানের উদ্বেগ

indexমারুফুল ইসলাম লিমন, রাবি প্রতিনিধি মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মিজানুর রহমান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে একের পর এক সহিংস কর্মকান্ডে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, ‘এই বিশ্ববিদ্যালয়টি বিশ্বের অন্যতম সুন্দর একটি ক্যাম্পাস। অথচ এই সাজানো-গোছানো ক্যাম্পাসে যখন একজন আরেকজনের পা কাটে এবং রগ কেটে দিচ্ছে তখন প্রশ্ন করতেই হয়Ñআমরা কোন পথে যাচ্ছি?’ রোববার বিকেলে রাবির আইন অনুষদের উদ্যোগে ‘আইন শিক্ষার ভবিষ্যৎ’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আইন বিভাগের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘তোমাদেরকে বৈশ্বিক শিক্ষার সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে হবে। সমাজের নীতি, নৈতিকতা মেনে চলতে হবে।’ তিনি শিক্ষার্থীদের আইনজীবী হিসেবে অর্থের পেছনে না ছুটে সত্যের পেছনে ছোটার পরামর্শ দেন।

আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক বিশ্বজিৎচন্দের সভাপতিত্বে সেমিনারে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আইন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক এম আহসান কবির।

উল্লেখ্য, রাবিতে গত ৬ মাসে সংগঠিত হয়েছে ১২টি সহিংস ঘটনা। এতে ১ শিক্ষার্থী নিহতসহ আহত হয়েছেন প্রায় ২ শতাধিক শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে পঙ্গুত্ব বরণ করতে হয়েছে ২ শিক্ষার্থীকে। সর্বশেষ গত ১৬ জুন বেলা টার দিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ কলা ভবনের নিচে নবাব আব্দুল লতিফ হলের শিবিরের সেক্রেটারি রাসেল আলমের ডান পা থেকে গোড়ালী বিচ্ছিন্ন করে দেয় ছাত্রলীগ। এর পরই ক্যাম্পাসে এসে মিজানুর রহমান এই কথা বলেন।