শিরোনাম

গডফাদারের মা ক্ষমতায় থাকলে মঙ্গল হবে না : খালেদা

29072_kaবিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্ করে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, গড ফাদারের মা ক্ষমতায় থাকলে জনগণের মঙ্গল হবে না। তাই এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। এই সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, রমজানের ঈদের পর জোরেশোরে আন্দোলন শুরু হবে। আজ রোববার বিকেলে জয়পুরহাট আরবি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জেলা বিএনপি আয়োজিত জনসভায় খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।

খালেদা বলেন, নোবেল বিজয়ী ড. ইউনূসকে সরকার পদে পদে অসম্মান করে অথচ সন্ত্রাসের গড ফাদার শামীম ওসমান ও নিজাম হাজারিকে প্রধানমন্ত্রী প্রকাশ্যে সমর্থন দেন।
গুম-খুনের ঘটনায় র‌্যাব কর্মকর্তা কর্ণেল জিয়া ও আটক কর্মকর্তা তারেক সাঈদ জড়িত মন্তব্য করে আবারো র‌্যাব বিলুপ্তির দাবী জানিয়ে খালেদা বলেন, এ বাহিনী সন্ত্রাস নির্মুলের জন্য গঠন করা হয়েছিলো। কিন্তু আওয়ামী লীগ আজ র‌্যাবকে দলীয় স্বার্থে ব্যবহার করে এ বাহিনীর ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে। দেশে খুন, গুম অপহরণের মাধ্যমে র‌্যাবকে আজ রক্ষী বাহিনীতে পরিণত করা হয়েছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রীকে দায়ী করে খালেদা বলেন এসবের জন্য হাসিনাকে একদিন কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে জবাবদিহী করতে হবে।
দেশে বিচার বিভাগের কোনো স্বাধীনতা নেই বলে দাবি করে খালেদা বলেন,
দেশে দুই ধরণের বিচার। আওয়ামীলীগের লোকজন খুন ও মানুষের পা কেটে বিচ্ছিন্ন করে ফেললেও তাদের আটক করা হয় না। অথচ বিরোধীদলীয় নেতাদের মিথ্যা মামলায় হয়রানি ও খুন গুম করা হচ্ছে। এসবের কোন বিচার নেই। তিনি বিচারকদের নিরপেক্ষ ও নির্ভয়ে দায়িত্ব পালনের আহবান জানান।
মিরপুরে বিহারীদের ঘরে আগুন দিয়ে নয় জনকে হত্যার বিচার দাবি করে তিনি বলেন, এর সাথে সরকারের স্থানীয় এমপি জড়িত থাকলেও তাকে আটক করা হচ্ছেনা । তিনি এ ঘটনায় জড়িতদের আটকের দাবি জানান।
বর্তমান সরকারকে ‘অবৈধ’ ঘোষণা দিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, আমরাই জনগণের সত্যিকার প্রতিনিধি। কারণ জনগণ আমাদের কথায় ভোটকেন্দ্রে যায়নি। মাত্র ৫ শতাংশেরও কম ভোট দিয়েছে। এজন্য আমি সরকারি বা বিরোধী দলীয় নেতা নই, আমি জনগণের প্রতিনিধি।
তিনি জয়পুরহাটবাসীকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, আপনারা নির্দলীয় সরকারের দাবির আন্দোলনে জোরালো ভূমিকা পালন করেছেন। আজ প্রতিকূল আবহাওয়া উপো করে এখানে সমবেত হয়েছেন। তাই আপনাদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ।

অবৈধ সরকারের হাত থেকে জনগণ মুক্তি চায় : বগুড়ায় খালেদা
বিএনপি চেয়ারপারসন ও ১৯দলীয় জোট প্রধান বেগম খালেদা জিয়া সরকার হটাও আন্দোলনের প্রস্তুতি নেয়ার জন্য দলের নেতা কর্মী ও বগুড়াবাসীর প্রতি আহবান জানিয়ে বলেছেন, অবৈধ সরকারের জুলুম, নির্যাতনে সকল শ্রেণী পেশার মানুুষ আজ অতিষ্ঠ । প্রতিদিন গুম খুন করছে সরকার। তাদের লক্ষ্য হলো দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যুব সমাজকে হত্যার মাধ্যমে ধ্বংস করা।

খালেদা জিয়া তাঁর বক্তব্যের শুরুতে বগুড়াবাসীকে ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, এ সরকার বাংলাদেশের সুনাম বিশ্বে নষ্ট করেছে। তারা প্রতিনিয়ত মানুুষ হত্যা ও গুম করছে। জনগন দ্রব্যমূল্যের উর্দ্বগতিতে আজ দিশেহারা। তাই  দেশবাসী অবৈধ সরকারের হাত থেকে মুক্তি চায়। তিনি বলেন, বগুড়ায় এ সরকার কোনা উন্নয়ন করেনি। যা করেছি আমরাই। খুনি সরকার বিদায় নিলে জনগণের সরকার কায়েম হবে। তখন আবারো আমরা বগুড়ায় উন্নয়ন করবো। তিনি বগুড়াবাসীকে আন্দোলনের প্রস্তুতি নেয়ার আহবান জানান। দলের নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, কোনো বিভেদ নিজেদের মধ্যে রাখা যাবে না । ঐক্যবদ্ধ থেকে অবৈধ সরকার হঠাতে হবে।

বেগম জিয়া রোববার দুপুরে বগুড়া সার্কিট হাউজ ত্যাগকালে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সেখানে এর আগে  তিনি গত ৫ জানুয়ারির নির্বাচন প্রতিহত আন্দোলনে পুলিশের গুলিতে নিহত যুবদল নেতা আবু ইউসুফের মা’র হাতে আর্থিক অনুদান তুলে দেন। এসময় বগুড়া জেলা বিএনপির সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁন, উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শোকরানাসহ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এরপর খালেদা জিয়া জয়পুরহাটের উদ্দেশ্যে  সার্কিট হাউজ ত্যাগ করেন। তাঁর যাত্রাপথে বিএনপির উদ্যোগে বগুড়া সার্কিট হাউজ থেকে শিবগঞ্জ উপজেলার সাদুরিয়া পর্যন্ত প্রায় ৩০ কিলোমিটার রাস্তার দুই পাশে বিএনপি নেতাকর্মী সহ সর্বস্তরের হাজার হাজার মানুষ বৃষ্টিতে ভিজে খালেদা জিয়াকে শুভেচ্ছা জানান। এসময় তিনি হাত নেড়ে শুভেচ্ছার জবাব দেন। শহরের বড়গোলা এলাকায় সারিয়াকান্দি-সোনাতলা নির্বাচনী এলাকার জনগণের পক্ষ থেকে খালেদা জিয়াকে শুভেচ্ছা জানান বিএনপি নেতা মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শোকরানা। এসময় তাঁর সাথে বিপুল সংখ্যক লোকজন উপস্থিত ছিলেন। একটানা বৃষ্টি উপেক্ষা করে স্লোগানে মুখরিত  হয়ে উঠে। এর আগে শনিবার রাত সাড়ে ৯টায় ঢাকা থেকে সড়কপথে বগুড়া সার্কিট হাউজে পৌছেন বেগম খালেদা জিয়া। এসময় জেলা বিএনপির সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক নেতা কর্মী বৃষ্টি উপেক্ষা করে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।