‘বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচন বৈধ’

hicourtবিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত ঘোষণা-সংক্রান্ত গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের (আরপিও) ১৯ ধারার বৈধতা নিয়ে দায়ের করা রিট আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। আর এতে বর্তমান সংসদের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত সদস্যরা পরোক্ষ ভাবে বৈধতা পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আজ বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার এবং বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করে। একইসঙ্গে ‘না’ ভোটের বিধান চেয়ে দায়ের করা আরেকটি রিট আবেদনও খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। গতকাল শুনানি শেষে আদালত রায়ের এ দিন ধার্য্য করে। এ মামলায় ছয় জন এমিকাসকিউরি আদালতে মতামত দিয়েছেন। তাদের মধ্যে মাহমুদুল ইসলাম ছাড়াও গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের ১৯ ধারা বৈধ বলে মত দেন ব্যারিস্টার আজমালুল হোসেন কিউসি এবং ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ। অন্যদিকে, ড. কামাল হোসেন, ব্যারিস্টার রফিক-উল হক এবং বদিউল আলম মজুমদার বিগত সংসদ নির্বাচনে ১৫৪ সংসদ সদস্যের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা অবৈধ বলে মত দেন। রাষ্ট্রপক্ষে এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এবং অতিরিক্ত এটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা শুনানি করেন। অন্যদিকে, রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার হাসান এম এস আজিম এবং রেদোয়ান আহমেদ রানজীব। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার বিধানের বৈধতা নিয়ে গত ১৬ই ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট রুল জারি করেছিল। জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার আবদুস সালামের দায়ের করা রিট আবেদনে হাইকোর্ট ওই রুল জারি করে।