শিরোনাম

সুনামগঞ্জে দু‘পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ২০,দোকানপাটে হামলা ভাংচুর

sunamganj-24অরুন চক্রবর্তী, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :
সুনামগঞ্জ জেলার দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার গণিগঞ্জে পূর্ব বিরোধের (দীর্ঘদিন ধরে জলমহালের দখল নিয়ে ) জের ধরে দু”পক্ষের সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়েছেন। সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের গণিগঞ্জ বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। আহতদের সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা  হয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের গণিগঞ্জ গ্রামের মৃত জবান আলীর ছেলে আব্দুল হেকিম,আব্দুল লতিফ ও তার ছেলে মহিম উদ্দিন, জহির মিয়া, ফইজ উদ্দিন ও হরিপুর গ্রামের শমসর আলীর ছেলে হাবিবুর রহমানের সাথে পার্শ্ববর্তী হরিপুর গ্রামের তম্বাহ আলীর ছেলে হাজী আব্দুর রহমানের দীর্ঘদিন ধরে একটি  জলমহালের দখল নিয়ে বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে সকালে প্রতিপক্ষ হাজী আব্দুর রহমান ও তার লোকজন গণিগঞ্জ বাজারে সালিস বৈঠকে আসলে প্রতিপক্ষ অব্দুল হেকিমের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। পরে দু‘পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে স্থানীয় গণিগঞ্জ বাজারে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়েছেন।  সংঘর্ষের পর গণিগঞ্জ বাজারে কিছু দুবৃর্ত্তরা বিভিন্ন দোকানপাটে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাঠ চালিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করে এবং নগদ টাকা সহ ৫ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। আহতরা হলেন,গণিগঞ্জ গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে মহিম উদ্দিন(৩০, আব্দুর রহিমের ছেলে আলী নবী (২৫) এবং প্রতিপক্ষ হরিপুর গ্রামের মোঃ অব্দুর রহমানের ছেলে রুবেল মিয়া(২২), আনোয়ার উদ্দিন(৪০), ছমির উদ্দিন(৩৫), শহিদুল ইসলাম(৩৩), আব্দুল খালিকের ছেলে বাবুল মিয়া(৩৫), জফর আলীর ছেলে আলী আহমদ(৩৪), আব্দুর রশিদের ছেলে আলী নবী । অন্যান্য আহতদের নাম ও পরিচয় জানা যায়নি। এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত মামলা দায়েরের  প্রস্তুতি চলছে বলে জানা যায়। এ ব্যাপারে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আল আমীন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে জলমহাল ও মামলা মোকদ্দমা নিয়ে বিরোধ চলছিল এরই জের ধরে সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। সেখানকার পরিস্থিতি এখন শান্ত বলে জানান। ##