পঞ্চগড় পুড়ছে তীব্র তাপদাহে বেড়েছে লোডশেডিং

panchogorডিজার হোসেন বাদশা, পঞ্চগড় প্রতিনিধি : ভয়াবহ তাপদাহের সাথে পাল্লা দিয়ে পঞ্চগড় শহর সহ গোটা জেলায় বিদ্যুতের লোডশেডিং বেড়েই চলছে। দেখা মিলছেনা কাঙ্খিত বৃষ্টির। প্রচণ্ড রোদে গাছ থেকে ঝরে যাচ্ছে মৌসমী ফল। দুপুর হতেই মহানগরীর রাস্তা-ঘাট ফাঁকা হয়ে পড়ছে।
দফায় দফায় বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ের কারণে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে পঞ্চগড় শহর সহ গোটা জেলার সাধারণ মানুষ। লোড শেডিংয়ের ফলে অফিস-আদালত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমের স্থবিরতা নেমে এসেছে।
আর গরমের কষ্টকে আরো বাড়িয়ে দিচ্ছে মাঝে-মধ্যে বিদ্যূতের আসা যাওয়া। এছাড়া অসহ্য গরমে বেড়ে গেছে পানি বাহিত ডায়রিয়াসহ অন্যান্য মৌসুমী রোগের প্রার্দুভাব। হাসপাতালে ডায়রিয়া রোগীর ভীড়ে বেসামাল হয়ে পড়ছে ডাক্তারসহ সেবিকারা।
সারা দিনে ঠিক মত ৪/৬ ঘন্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ পাওয়া যায় না।
ঘণ্টার পর ঘণ্টা বিদ্যুৎবিহীন থাকার কারণ সম্পর্কে পঞ্চগড় বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তা মনির হোসেন জানান, তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় বিদ্যুতের লোড বেড়ে গেছে। এ কারণে বর্তমান বিদ্যুৎ বিতরণের যে সিস্টেম রয়েছে তা দিয়ে চাহিদা অনুযায়ী বিদ্যুৎ সরবরাহ করা যাচ্ছে না। পাশাপাশি তাপমাত্রার কারণে ট্রান্সফরমা ও বিদ্যুতের সাবস্টেশন গরম হয়ে ভেতরে কয়েল পুড়ে যাচ্ছে। লোড কমানোর জন্য মাঝে মধ্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে।
অন্যদিকে প্রখর রোদের কারণে   মাঠে ময়দানে খেটে খাওয়া লোকজন কাজে যেতে পারছে না। ফলে তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অর্ধাহারে-অনাহারে দিনকাটাতে হচ্ছে। অপরদিকে বৃষ্ঠিপাত না হওয়ায় সর্বত্র মশা-মাছি ও পোকা-মাকরের উপদ্রপ বেড়ে গেছে অসহনীয় হারে। মশার উপদ্রপে লোকজন অতিষ্ঠ হলেও মশা ধ্বংশে পৌর কর্তৃপক্ষের কোন উদ্যোগ দেখা যায়নি।