প্রধানমন্ত্রী বেইজিং পৌঁছেছেন

44843_Hasina00বিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চীনের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর কুনমিং থেকে বেইজিং পৌঁছেছেন। তিনি বর্তমানে চীনে ছয়দিনের সরকারি সফরে রয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী চায়না ইস্টার্ন এয়ারলাইন্সের বিমানটি স্থানীয় সময় দুপুর দুইটায় (বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টা) বেইজিং আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করে।

প্রধানমন্ত্রীকে বিমান বন্দরে স্বাগত জানান চীনের পররাষ্ট্র বিষয়ক ভাইস মিনিস্টিার লিউ ঝেনমিন। এ সময় বেইজিংয়ে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আজিজুল হক উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীকে দু’টি শিশু ফুলের তোড়া উপহার দেয়। পরে তাকে চায়নিজ পিপলস আর্মির একটি চৌকস দল স্ট্যাটিক গার্ড-অব-অনার প্রদান করে।

বিমানবন্দরে উষ্ণ অভ্যর্থনা শেষে প্রধানমন্ত্রীকে মোটর শোভাযাত্রা সহকারে দাইয়োতাই সরকারি গেস্ট হাউজে নিয়ে যাওয়া হয়। বেইজিং অবস্থানকালে এই গেস্ট হাইজেই তিনি অবস্থান করবেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টায় (বাংলাদেশ সময় সকালে সাড়ে আটটা) কুনমিংয়ের চাঙশুই আর্ন্তজাতিক বিমান বন্দর ত্যাগ করেন।

চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াঙের আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী ছয়দিনের সরকারি সফরের অংশ হিসেবে গত ৬ জুন কুনমিং আসেন।

প্রধানমন্ত্রী পরে বিকেলে তিয়ানানমেন স্কয়ারে পিপলস হিরোজ মনুমেন্টে পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন।

শেখ হাসিনা সোমবার চায়না ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজে মূল বক্তব্য রাখবেন।

তিনি পরে চীনা প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াংয়ের সাথে আনুষ্ঠানিক বৈঠক করবেন। পরে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হবে। সন্ধ্যায় চীনের প্রধানমন্ত্রীর আয়োজনে এক ভোজসভায় তিনি অংশ নেবেন।

প্রধানমন্ত্রী মঙ্গলবার বাংলাদেশ চায়না ট্রেড অ্যান্ড ইকোনমিক কোঅপারেশন ফোরামে মূল বক্তব্য রাখবেন।

শেখ হাসিনা চীনের প্রেসিডেন্ট জি জিনপিং এবং চায়নিজ পিপলস পলিটিক্যাল কনসালটেটিভ কনফারেন্সের (সিপিপিসিসি) চেয়ারম্যান উ ঝেংশেংয়ের সাথে বৈঠক করবেন।

প্রধানমন্ত্রী সিসিটিভি, ফনিক্স টিভি, ইউনান টিভি ও চায়না রেডিও ইন্টারন্যাশনালের বাংলা বিভাগকে সাক্ষাৎকার দেবেন। এছাড়া চীনের কমিউনিকেশন ইউনিভার্সিটির বাংলা বিভাগের ছাত্রছাত্রীদের আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেও তিনি যোগ দেবেন।

প্রধানমন্ত্রী আগামী ১১ জুন সকালে দেশের উদ্দেশে বেইজিং ত্যাগ করবেন এবং একইদিন বিকেলে ঢাকা পৌঁছবেন।

প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী অন্যান্যের মধ্যে রয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, প্রধানমন্ত্রীর রাজনীতি বিষয়ক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, প্রধানমন্ত্রীর মিডিয়া বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব এ কে এম শামীম চৌধুরী।

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর সাথে ৭০ সদস্যের একটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদলও রয়েছে।

কুনমিংয়ে প্রধানমন্ত্রী কুনমিং ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন অ্যান্ড এক্সিবিশন সেন্টারে চায়না-সাউথ এশিয়া এক্সপোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন এবং বক্তব্য রাখেন।

এছাড়া তিনি চায়না-সাউথ এশিয়া বিজনেস ফোরামে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

শেখ হাসিনা চীনের উপ প্রধানমন্ত্রী ওয়াং ইয়াংয়ের সাথে বৈঠক করেন এবং ইউনান প্রদেশের গভর্ণর লি জিহেং আয়োজিত ভোজসভায় যোগ দেন।