এখনই রুখে না দাঁড়ালে সরকার সব মিডিয়া বন্ধ করে দেবে : খন্দকার মাহবুব

44571_mahbub adবিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সহসভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, সরকারের মিডিয়াবিরোধী কার্যক্রম এখনই রুখে না দাঁড়ালে আরেকটি ১৬ জুন আসবে এবং সব মিডিয়া বন্ধ করে দেয়া হবে। তিনি নির্ভীক সাংবাদিক মাহমুদুর রহমানের চিকিৎসা এবং মুক্তির ব্যাপারে সোচ্চার হওয়ার জন্য দেশবাসীর পাশাপাশি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলোকেও এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।
আজ জাতীয় প্রেস কাব লাউঞ্জে আপসহীন সাংবাদিক মাহমুদুর রহমানের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে তার আইনজীবী ও আমার দেশ পরিবারের পক্ষ থেকে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই আহ্বান জানান। সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের আহ্বায়ক সাংবাদিক নেতা রুহুল আমিন গাজি, জাতীয় প্রেস কাবের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবদুল হাই শিকদার, অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার, অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম প্রমুখ।
খন্দকার মাহবুব বলেন, ‘মাহমুদুর রহমান আমার দেখে সবচেয়ে নির্ভীক সাংবাদিক। তিনি এমন এক ব্যক্তি, যিনি মানহানির মামলায় ক্ষমা চাইতে অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেছিলেন, আমি সত্য কথা বলেছি, তাই ক্ষমা চাইব না।’
তিনি বলেন, চিকিৎসা না দিয়ে মাহমুদুর রহমানকে তিলে তিলে হত্যা করার ষড়যন্ত্র চলছে।
তিনি বলেন, অবৈধ সরকার অবৈধ কাজ করবে, এমনটাই স্বাভাবিক। আওয়ামী লীগ সরকার সবসময়ই মিডিয়াবিরোধী হয়। বাকশালি আমলে মিডিয়া বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। ১৬ জুন কাল দিবস হিসেবে পরিচিত। সরকারের মিডিয়াবিরোধী অবস্থানের বিরুদ্ধে না দাঁড়ালে সব মিডিয়া বন্ধ করে দেয়া হবে।
রুহুল আমিন গাজি বলেন, আজ মাহমুদুর রহমান এবং আমার দেশের বিরুদ্ধে যে চক্রান্ত চলছে, তা মেনে নিলে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎই অন্ধকার হয়ে যাবে। মনে রাখতে হবে, তল্পিবাহক মিডিয়া দিয়ে দেশ ও জাতির কোনো কল্যাণ হয় না।
লিখিত বক্তব্যে তাজুল ইসলাম বলেন, মাহমুদুর রহমানকে এক বছর তিন মাস ধরে আটক রাখা হয়েছে। বিনা বিচারে ও বিনা চিকিৎসায় তার মতো একজন সম্পাদক ও লেখকের এত দীর্ঘ দিন কারাবাসের ঘটনা অকল্পনীয়। তিনি বলেন, আদালতের নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও আজ পর্যন্ত মাহমুদুর রহমানকে ফিজিওথেরাপি দেয়া হচ্ছে না।