উখিয়ায় বনবিভাগের নিয়ন্ত্রণের বাইরে ৪০ হাজার একর বনভুমি

cox-01এম.শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার :
কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিবভাগের আওতাধীন উখিয়া উপজেলায় প্রায় ৪০ হাজার একর বনভুমি বেদখল হয়ে  গেছে। গড়ে উঠেছে অবৈধ কাচা পাকা ঘর সহ বিভিন্ন স্থাপনা। বনায়নও বিরান ভুমিতে পরিণত হয়েছে। এই সব বনভুমির অধিকাংশই বনবিভাগ ও সরকারের নিয়ন্ত্রনের বাইরে চলে গেছে। অধিক জন সংখ্যার চাপ, যত্রতত্র অবৈধ করাত কল স্থাপন, সন্ত্রাসী কাঠ চোরদের দৌরাত্ম বৃদ্ধি, বন কর্মকর্তাদের সদিচ্ছা ও সাধারণ জনগণের দেশ প্রেমের মারাত্মক অভাবই এর জন্য দায়ী বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

সরকারী উদ্যোগে এসব বেদখলী বনভূমি সামাজিক বনায়নের আওতায় এনে স্বল্প মেয়াদী বনায়ন করা হলে আগামী ১০ বছর পর সরকার যেমন লাভবান হবেন, তেমনি পাল্টে যাবে  উখিয়ার হাজারো মানুষের ভাগ্য। এমন অভিমত সচেতন মহলের।

কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, উখিয়া উপজেলার ২টি রেঞ্জ ও ১১টি বন বিটের অধীনে প্রায় ৪০ হাজার একর সরকারী বন ভুমি রয়েছে।

প্রত্যেক সরকারের আমলেই উখিয়ার সরকারী বনভুমিতে প্রতিবছর লাখ লাখ টাকা ব্যয়ে বনায়ন করা হয়। উক্ত বনায়নের চারা গাছ গুলো পরিপূর্ণতা লাভের যোগ পায়না। সন্ত্রাসী কাঠচোর ও বন দস্যুরা প্রতিনিয়ত দিন দুপুরে ও রাতের আধারে পৈত্রিক সম্পত্তির মত কেটে লুট করে নিয়ে যায়। বন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা শত চেষ্টা করেও কাঠ চোর সন্ত্রাসী ও বন দস্যুদের দমন করতে পারেনা। যার কারণে এক সময়ের বনজ সম্পদে ভরপুর উখিয়ার বন ভুমিতে এখন বৃক্ষ শুন্য হয়ে পড়েছে। বির্স্তীণ বনায়ন এলাকা যেন বিরান ভুমি।

স্থানীয় অধিবাসিরা জানিয়েছেন, উখিয়া উপজেলার বিস্তীর্ণ বন ভুমি সরকারী উদ্যোগে সামাজিক বনায়নের আওতায় এনে স্বল্প মেয়াদী বাগান করা হলে সরকার এবং সাধারণ জনগণ উভয়েই লাভবান হওয়া যাবে। একটি পরিবারকে দুই একর বনভুমি রক্ষণা-বেক্ষণ ও বাগান সৃজনের সুযোগ দেওয়া হলে ২০ হাজার পরিবারকে সামাজিক বনায়নের উপকারভোগীর আওতায় আনা সম্ভব হবে। এসব বাগানে নিজেদের স্বার্থ জড়িত থাকায় পরবর্তীতে উপকারভোগীরাই নিজ উদ্যোগে বাগান রক্ষায় ভুমিকা রাখবে। ইনানী বনবিট কর্মকতা মোঃ জসিম উদ্দিন এলাহী জানান, দুই একর বনভুমিতে স্বল্প মেয়াদী বাগান করে সঠিকভাবে রক্ষণা বেক্ষণ করা হলে ১০ বছর পর কমপক্ষে ৩০ লাখ টাকার গাছ বিক্রি করা সম্ভব হবে।

উখিয়া রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক জানান, উখিয়া-টেকনাফের বির্স্তীণ বনভুমি সামাজিক বনায়নের আওতাধীন আনার জন্য সরকার ও বন বিভাগ প্রক্রিয়া চালাচ্ছেন।

DwLqvq ebwefv‡Mi wbqš¿‡Yi evB‡i 40 nvRvi GKi ebfywg

Gg.kvnRvnvb †PŠayix kvnxb, K·evRvi, 3 Ryb \

K·evRvi `w¶Y ebweefv‡Mi AvIZvaxb DwLqv Dc‡Rjvq cÖvq 40 nvRvi GKi ebfywg ‡e`Lj n‡q  †M‡Q| M‡o D‡V‡Q A‰ea KvPv cvKv Ni mn wewfbœ ¯’vcbv| ebvqbI weivb fywg‡Z cwiYZ n‡q‡Q| GB me ebfywgi AwaKvskB ebwefvM I miKv‡ii wbqš¿‡bi evB‡i P‡j †M‡Q| AwaK Rb msL¨vi Pvc, hÎZÎ A‰ea KivZ Kj ¯’vcb, mš¿vmx KvV †Pvi‡`i †`ŠivZ¥ e„w×, eb Kg©KZ©v‡`i mw`”Qv I mvaviY RbM‡Yi †`k †cÖ‡gi gvivZ¥K AfveB Gi Rb¨ `vqx e‡j g‡b Ki‡Qb m‡PZb gnj|

miKvix D‡`¨v‡M Gme ‡e`Ljx ebf~wg mvgvwRK ebvq‡bi AvIZvq G‡b ¯^í †gqv`x ebvqb Kiv n‡j AvMvgx 10 eQi ci miKvi †hgb jvfevb n‡eb, †Zgwb cv‡ë hv‡e  DwLqvi nvRv‡iv gvby‡li fvM¨| Ggb AwfgZ m‡PZb gn‡ji|

K·evRvi `w¶Y eb wefvM my‡Î Rvbv †M‡Q, DwLqv Dc‡Rjvi 2wU †iÄ I 11wU eb we‡Ui Aax‡b cÖvq 40 nvRvi GKi miKvix eb fywg i‡q‡Q|

cÖ‡Z¨K miKv‡ii Avg‡jB DwLqvi miKvix ebfywg‡Z cÖwZeQi jvL jvL UvKv e¨‡q ebvqb Kiv nq| D³ ebvq‡bi Pviv MvQ ¸‡jv cwic~Y©Zv jv‡fi ‡hvM cvqbv| mš¿vmx KvV‡Pvi I eb `my¨iv cÖwZwbqZ w`b `ycy‡i I iv‡Zi Avav‡i ‰cwÎK m¤úwËi gZ †K‡U jyU K‡i wb‡q hvq| eb Kg©KZv©-Kg©Pvixiv kZ †Póv K‡iI KvV †Pvi mš¿vmx I eb `my¨‡`i `gb Ki‡Z cv‡ibv| hvi Kvi‡Y GK mg‡qi ebR m¤ú‡` ficyi DwLqvi eb fywg‡Z GLb e„¶ ïb¨ n‡q c‡o‡Q| we¯—x©Y ebvqb GjvKv ‡hb weivb fywg|

¯’vbxq Awaevwmiv Rvwb‡q‡Qb, DwLqv Dc‡Rjvi we¯—xY© eb fywg miKvix D‡`¨v‡M mvgvwRK ebvq‡bi AvIZvq G‡b ¯^í †gqv`x evMvb Kiv n‡j miKvi Ges mvaviY RbMY Df‡qB jvfevb nIqv hv‡e| GKwU cwievi‡K `yB GKi ebfywg i¶Yv-‡e¶Y I evMvb m„R‡bi my‡hvM †`Iqv n‡j 20 nvRvi cwievi‡K mvgvwRK ebvq‡bi DcKvi‡fvMxi AvIZvq Avbv m¤¢e n‡e| Gme evMv‡b wb‡R‡`i ¯^v_© RwoZ _vKvq cieZx©‡Z DcKvi‡fvMxivB wbR D‡`¨v‡M evMvb i¶vq fywgKv ivL‡e| Bbvbx ebweU Kg©KZv †gvt Rwmg DwÏb Gjvnx Rvbvb, `yB GKi ebfywg‡Z ¯^í †gqv`x evMvb K‡i mwVKfv‡e i¶Yv †e¶Y Kiv n‡j 10 eQi ci Kgc‡¶ 30 jvL UvKvi MvQ wewµ Kiv m¤¢e n‡e|

DwLqv †i‡Äi mnKvix eb msi¶K Rvbvb, DwLqv-‡UKbv‡di we¯—x©Y ebfywg mvgvwRK ebvq‡bi AvIZvaxb Avbvi Rb¨ miKvi I eb wefvM cÖwµqv Pvjv‡”Qb|