গুইমারা থানাকে উপজেলা ঘোষণা করায় এলাকায় আনন্দ র‌্যালী ও মিষ্টি বিতরণ

DSCF2780খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি :
দীর্ঘ দিনের প্রাণের দাবী অবশেষে পুরণ হলো খাগড়াছড়ির গুইমারাবাসীর। গুইমারা থানাকে চুড়ান্ত ভাবে  উপজেলা ঘোষণা করায় এলাকায় বইছে আনন্দের বন্যা, আনন্দ মিছিল করে একে অপরকে মিষ্টি বিতরণ করছেন।
সোমবার সচিবালয়ে সরকারের প্রশাসনিক পূন:বিন্যাস সম্পর্কিত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি (নিকার) কমিটির বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় খাগড়াছড়ি’র গুইমারা ও সিলেটের ওসমান নগরকে উপজেলায় রূপান্তরের চুড়ান্ত অনুমোদন দেওয়ার সংবাদ বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশিত হলে আনন্দ উল্লাসে রাস্তায় নেমে আসে গুইমারাবাসীর লোকজন।
উপজেলা রূপান্তরের ঘোষণার সংবাদ সাথে সাথে বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় পৌছে যায়। দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবী পুরণ হওয়ায় নতুন উপজেলাবাসী একে অপরকে মিষ্টি খাইয়ে উল্লাস প্রকাশ করেন। বিকেলে গুইমারা বাসীর উদ্যোগে তাৎক্ষনিক আনন্দ মিছিল ও শোভাযাত্রা বের হয়। গুইমারা এলাকার সর্বস্তরের মানুষ, সর্বস্তরের লোকজনেরা একই সাথে মিছিলে সামিল হয়। আনন্দ মিছিলে অংশগ্রহন করেন জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক আবু ইউছুফ, গুইমারা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, সাধারণ সম্পাদক ও গুইমারা ইউপি চেয়ারম্যান মেমং মারমা, সাংগঠনিক সম্পাদক আইয়ুব মেম্বার, নব গঠিত গুইমারা প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল আলী, সাধারণ সম্পাদক মিল্টন চাকমা, গুইমারা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি সাইফুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, বিভিন্ন মৌজার হেডম্যান-কারবারী, জন প্রতিনিধি সহ সর্বস্তরের মানুষ। পরে গুইমারা থানা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের সামনে একে অপরকে মিষ্টি খাইয়ে, ব্যান্ডের তালে তালে নেচে গেয়ে উল্ল্যাস প্রকাশ করেন।
আওয়ামীলীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকারের অন্যতম নির্বাচনী ওয়াদা গত ১৯৯৯ইং সালের ৪ঠা মে গুইমারা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তৎকালীন আওয়ামীলীগ সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোঃ নাছিম গুইমারাকে উপজেলায় রূপান্তরের ঘোষণা দিলে ও এতদিন তা বাস্তবায়নের মুখ দেখেনি। এ নিয়ে সর্বশেষ গত ২১ সেপ্টেম্বর/২০১৩ গুইমারা থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মেমং মারমা তৃণমুল নেতাকর্মীদের সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে মত বিনিময় সভায় গুইমারাকে উপজেলায় রূপান্তরের দাবী জানান। দাবীর আলোকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে যদি কোন থানা উপজেলায় রূপান্তরিত হয় তা গুইমারাকেই করা হবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন। এরপর আওয়ামীলীগ সরকারের প্রতিশ্রুতি ও নির্বাচনী ওয়াদা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে যাবতীয় দাপ্তরিক কার্যক্রম শেষে নিকার কমিটির সভায় চুড়ান্ত অনুমোদনের অপক্ষোয় ছিল গুইমারাবাসী। যা দীর্ঘদিন পরে হলেও বাস্তবায়নের মুখ দেখায় আনন্দের সাগরে ভাসছে গুইমারাবাসী।
উল্লেখ্য, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার গুইমারা ইউপি, রামগড় উপজেলার হাফছড়ি ইউপি, মহালছড়ি উপজেলার সিন্দুকছড়ি ইউপিকে নিয়ে ৩টি ইউনিয়ন পরিষদ, ২১০বর্গ কিলোমিটার আয়তন ও প্রায় ৫৫হাজার জনসংখ্যার নিয়ে গঠিত হলো নতুন গুইমারা উপজেলা। নতুন উপজেলাসহ বর্তমানে খাগড়াছড়িতে মোট নয়টি উপজেলা হল।