দলে বসে মাস্তানি-খুনোখুনি করা চলবে না : যোগাযোগমন্ত্রী

obaid_76485বিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দল থেকে ‘আগাছা-পরগাছা আর হাইব্রিড-ফরমালিন দেয়া’ নেতাদের সমূলে উপড়ে ফেলা হবে। রোববার দুপুরে ভোলার লালমোহনের মধ্যবাজারের লাঙ্গলখালী সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন যোগাযোগমন্ত্রী।মন্ত্রী বলেন, “দলে বসে মাস্তানি-খুনোখুনি করা চলবে না।” নারায়ণগঞ্জ ও ফেনীর হত্যাকাণ্ডের ঘটনার তদন্তে যে দোষী হবে, তাকেই শাস্তি পেতে হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেছেন, দল থেকে ‘আগাছা-পরগাছা আর হাইব্রিড-ফরমালিন দেয়া’ নেতাদের সমূলে উপড়ে ফেলা হবে।

রোববার দুপুরে ভোলার লালমোহনের মধ্যবাজারের লাঙ্গলখালী সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন যোগাযোগমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, “দলে বসে মাস্তানি-খুনোখুনি করা চলবে না।” নারায়ণগঞ্জ ও ফেনীর হত্যাকাণ্ডের ঘটনার তদন্তে যে দোষী হবে, তাকেই শাস্তি পেতে হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

বিএনপির উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, “আপনারা নিয়মতান্ত্রিকভাবে আন্দোলনে আসেন। রাজনীতি-আন্দোলনের নামে মানুষ খুন করবেন না, জ্বালাও-পোড়াও করবেন না, গাছ কাটবেন না, রাস্তায় গর্ত করবেন না। গাছ-রাস্তা আওয়ামী লীগ করে না। এগুলো দেশের সম্পদ, জনগণের সম্পদ।”

আওয়ামী লীগের এই শীর্ষস্থানীয় নেতা তারেক রহমানকে ইঙ্গিত করে বলেন, “তার এখন  ‘ফান্দে পড়িয়া বগা কান্দে রে অবস্থা’। দেশ ত্যাগ করার সময় তিনি বলেছেন, রাজনীতি করবেন না। এখন মামলার ভয়ে, জেলের ভয়ে আবোল-তাবোল বকছেন।”

মন্ত্রী বলেন, “বিএনপি এখন হতাশায় ভুগছে। নেতারা নির্বাচনে না গিয়ে ভুল করেছেন। আর কর্মীদের মাথায় হাত অবস্থা।”

নিজ দলের স্থানীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল বলেন, “ক্ষমতা আজ আছে কাল নেই। এই জনগণ ফুলের মালাও দিতে পারে, জুতার মালাও দিতে পারে। সাধারণ জনগণ মোটা চাল, মোটা কাপড় আর শান্তির ঘুম চায়। তা থেকে বঞ্চিত করা যাবে না তাদের।”

লালমোহন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ফখরুল আলম হাওলাদারের সভাপতিত্বে আরো বক্তৃতা করেন সাংসদ নুরন্নবী চৌধুরী শাওন, লালমোহন উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন আহাম্মদ, লালমোহন পৌর মেয়র এমদাদুল ইসলাম তুহিন, তজুমদ্দিন উপজেলা চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন প্রমুখ।

এর আগে দুপুর ১২টার দিকে যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের লালমোহন উপজেলার লাঙ্গলখালী (৩৭ মিটার দীর্ঘ) সেতু উদ্বোধন করেন।