মিয়ানমার সীমান্তে আজও উত্তেজনা

25890_a2বিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের নাইক্ষ্যংছড়ির পাইনছড়ি ৫২নং পিলার এলাকায় বিজিবি-বিজিপির গুলাগুলির ঘটনায় আজও সেখানে উত্তেজনা বিরাজ করছে। মিয়ানমার সীমান্তের অভ্যন্তরে ব্যাপক সৈন্য সমাবেশ ঘটিয়েছে বলে নিভর্রযোগ্য সূত্রে জানা গেছে। মিয়ানমার মংডু শহরের বলি বাজার, ফকিরা বাজার, ওয়ালিদং, তুমরু ও ঢেকিবনিয়া সীমান্ত এলাকায় ১নং ও ২ নং সেনাবাহিনীর সেক্টরে তারা অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে। বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের জিরো পয়েন্ট এলাকায় অঘোষিত কারফিউ চলছে। এমনকি বিজিবি সদস্যরা এ মুহুর্তে ক্যাম্প ছেড়ে কোথাও যাচ্ছেন না। বুধবারের পাইনছড়ি সীমান্ত এলাকায় বিজিপির গুলি বর্ষণে ওই ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার মিজানুর রহমান গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। তার লাশ বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) শুক্রবার সকালে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বিজিবির হাতে হস্তান্তর করার কথা জানিয়ে পত্র পাঠালেও এখনো লাশ ফেরত দেয়নি মিয়ানমার। এ পরিস্থিতিতে উখিয়া-নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্ত এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে বিরাজ করছে উদ্বেগ-উৎকন্ঠা।  আবারও গোলাগুলির আশংকায় উভয় সীমান্ত এলাকা জনশূন্য হয়ে পড়েছে এবং সীমান্তে এক প্রকার যুদ্ধাবস্থা বিরাজ করছে। কক্সবাজার ১৭ বিজিবির অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল খন্দকার সাইফুল আলম জানান, বুধবারে পাইনছড়ি সীমান্ত এলাকায় গুলি বর্ষনের ঘটনার পর থেকে তার নিয়ন্ত্রনাধীন ১৮ হতে ৪০ নং সীমান্ত পিলার পর্যন্ত সীমান্তের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত সীমান্ত টহল জোরদার করা হয়েছে।