ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করতে সরকার হত্যা ও গুমের পথ বেছে নিয়েছে : তারেক রহমান

tarekমতিয়ার চৌধুরী ,লন্ডনঃ সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যার সাথে শেখ হাসিনা সরাসরি জড়িত, সে নিজে জড়িত না থাকলে এতোদিনে এই হত্যার রহস্য উদঘাটিত হতো। শেখ হাসিনার নির্দেশেই সাগর-রুনিকে হত্যা করা হয়। এখানেই শেষ নয় নারায়নগঞ্জ সহ দেশের প্রতিটি গুম ও হত্যার পেছনে সরকারের নির্দেশ রয়েছে। ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করতে সরকার হত্যা ও গুমের পথ বেছে নিয়েছে। এমন্তব্য বিএনপির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেণ্ট তারেক জিয়ার। তারেক জিয়া বলেন শেখ হাসিনা র‌্যাবকে একটি কিলার বাহিনীতে পরিণত করেছে। তিনি র‌্যাব বিলুপ্তির দাবী জানিয়ে বলেন, র‌্যাবকে বিলুপ্ত না করলে সরকারের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন গড়ে তোলা হবে। গতকাল ২৮শে মে লন্ডন সময় সন্ধ্যে সাত ঘটিকায় এসেক্সের ৩১০ ইলফোর্ড হাই-রোডের প্রভা-বেনকুইটিং হলে যুক্তরাজ্য বিএনপি আয়োজিত সাবেক প্রেসিডেণ্ট জিয়াউর রহমানের ৩৩তম মৃত্যু বার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অথিতির বক্তব্যে তারেক জিয়া এসব মন্তব্য করেন। তিনি বলেন র‌্যাব বিলুপ্তি সহ দেশে সাধারন মানুষের জানমালের নিরাপত্তার দাবীতে দেশে-বিদেশে সাক্ষর অভিযান শুরু করেছেন, তিনি বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়ী-বাড়ী গিয়ে সাক্ষর সংগ্রহ করার আহবান জানিয়ে বলেন বিশ্ববাসী দেখুক বাংলাদেশের মানুষ আর গুম খুনের সরকারকে ক্ষমতায় দেখতে চায়না। তিনি বলেন দেশনেত্রী খালেদা জিয়া সরকার পতনের আন্দোলন শুরু করবেন, ইউকে বিএনপির নেতা কর্মীদের সরকার পতনের আন্দোলনে শরীক হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন যে মূহুর্থে বেগম জিয়া বাংলাদেশে আন্দোলনের সূচনা করবেন ঠিক এই মূহুর্থে বৃটেন সহ ইউরোপের প্রতিটি শহরে একযোগে আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। তারকে জিয়া বলেন জিয়াউর রহমান শুধু স্বাধীনতার ঘোষক বা বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতিই ছিলেন না তিনি ছিলেন জাতির শিক্ষক। তিনি বলেন এই মহান শিক্ষকের নির্দেশিত পথেই আমাদের চলতে হবে।  যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি সায়েস্তা চৌধুরী কুদ্দুসের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী কয়ছর এম আহমদের পরিচালনায় অনুষ্টিত সভায় আরো বক্তব্য রাখের ইউকে বিএনপির সাবেক প্রেসিডেণ্ট মিয়া মনিরুল আলম, মাহিদুর রহমান, সাবেক সেক্রেটারী এম এ মালেক, ব্যারিষ্টার এম এ সালাম, অধ্যাপক মুজিবুর রহমান, অধ্যাপক এম এ মালেক, আব্দুল হামিদ চৌধুরী, নাসিমুজ্জামান চৌধুরী, ব্যারিষ্টার ইকবাল,  তৈমুছ আলী, জামাতে ইসলাম থেকে বিএনপিতে যোগদান কারী মৌলানা রশিদ আহমদ প্রমুখ।