জাবি শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিল বাস মালিক ও শ্রমিক সমিতি

juজাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বহনকারী বাসের উপর গতকালের গাবতলীর বাস চালক ও শ্রমিকদের হামলার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিয়েছে গাবতলী ভিলেজ লাইন মিনিবাস মালিক ও শ্রমিক সমিতি।

মঙ্গলবার বেলা ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট কক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যসহ প্রশাসন, স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন, সাধারণ শিক্ষার্থী এবং মিনিবাস মালিক ও শ্রমিক সমিতির নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এক জরুরী যৌথ সভায় তারা দাবি মেনে নেয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি দল এবং মিনিবাস মালিক ও শ্রমিক সমিতির গতকালের ঘটনার আলোচনা প্রসঙ্গে অপ্রীতিকর ঘটনার বর্ণনা উঠে আসে।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলোর পরিপ্রেক্ষিতে দুই পক্ষই সমঝোতা করে লিখিতাকারে কয়েকটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তগুলোর মধ্যে রয়েছে ভিলেজ লাইন বাস মালিক ও শ্রমিক সমিতির নেতৃবৃন্দরা গতকালের অপ্রীতিকর ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ ও ক্ষমা প্রার্থনা করেন। উপযুক্ত প্রমাণ সাপেক্ষে ভূক্তভোগী শিক্ষার্থীদের যথাযথ ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকের সামনে সব বাসের কাউন্টার দিতে গাবতলী বাস মালিক ও শ্রমিক সমিতির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনাপূর্বক দ্রƒত ব্যবস্থা গ্রহণ করার অঙ্গীকার করা হয়েছে। উভয় পক্ষই এমন ঘটনা রোধকল্পে আরো সচেতন বলে অঙ্গীকার করেছে।

এতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে মো. শার্দুল ইসলাম, রাশেদ ও জয়  এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষে উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসনে স্বাক্ষর করেন। অপরদিকে মালিক ও শ্রমিক সমিতির পক্ষে সংগঠনটির সভাপতি মো. মানিক মিয়া, কার্যকরী সভাপতি মো. অজল হক, কোষাধ্যক্ষ মো. শাহাবুদ্দিন স্বাক্ষর করেন।

সভায় অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান এমন ঘটনা রোধকল্পে উভয় পক্ষ মিলেই একটি কার্যকর কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়।

যৌথ সভায় অন্যান্যের মধ্যে প্রক্টর অধ্যাপক তপন কুমারসহ প্রক্টরিয়াল বডির সদস্য, বিভিন্ন অনুষদের ডীন, বিভাগীয় সভাপতি, আশুলিয়া থানা পুলিশ, বাস মালিক সমিতির আরো পাঁচজন নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গতকাল বিকেল চারটায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে জাবি শিক্ষার্থী পরিবহনকারী বিআরটিসির দ্বিতল বাসকে ভিলেজ লাইন বাসের ধাক্কা দেওয়াকে কেন্দ্র করে গাবতলীর বাস চালক ও শ্রমিকরা শিক্ষার্থীদের বাসের উপর হামলা করে ভাংচুর করে। এতে কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হয় এবং তাদের কিছু জিনিসপত্র হারিয়ে যায়। এর প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা গতকাল সাড়ে চারটা থেকে রাত সাড়ে ১০ টা পর্যন্ত ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করলে ভিলেজ লাইন বাস মালিক ও শ্রমিক সমিতির নেতৃবৃন্দরা আজ ১১ টায় শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেয়। এতে শিক্ষার্থীরা অবরোধ স্থগিত করে। এ প্রেক্ষাপটে আজ যৌথ সভায় উল্লেখিত সিদ্ধান্ত গৃহীত হলে ঘটনাটির বিষয়ে দুই পক্ষেরই সমঝোতা হয় এবং শিক্ষার্থীরা তাদের অবরোধ সম্পূর্ণ তুলে নেয়।