শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে স্ত্রীর পরকীয়ার খুন হলেন স্বামী

শাকিল মুরাদ, শেরপুর প্রতিনিধি: শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার স্ত্রীর পরকীয়ায় নুরু মল্লিক (৪০) নামের ৩ সন্তানের জনক খুন হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ দুই ব্যাক্তি কে আটক করে কোর্টে প্রেরণ করেছে। শুক্রবার পুলিশ নুরু মিয়ার লাশ উদ্ধার করে শেরপুর মর্গে পাঠিয়েছে। আটকৃতরা হলো, নিহতের সমুন্ধি নাজমুল (৪০) ও ওয়েSerpurলডিং দোকান কর্মচারী সাজু মিয়া (৩৬)।

এলাকাবাসী, পুলিশ ও তার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল ২২ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুরে নুরু মল্লিক গাজীপুর জেলার বাঘের বাজার সানু মিয়ার ওয়েলডিং মেশিনের দোকানে খুন হয়। নুরু ওই দোকানে শ্রমিকের কাজ করতো। পরে মৃতের পরিবার গাজীপুর জেলার কাজী হাসপাতাল থেকে নুরুর লাশ উদ্ধার করে নালিতাবাড়ী সাহাপাড়া মহল্লা তার চাচার বাড়ীতে নিয়ে আসে। মৃত নুরু মিয়ার ছেলে রাসেল (১৬) এবং একই এলাকার কিসমত, রুনিয়া, হারুনুর রশিদ বলেন, নালিতাবাড়ী শহরের সাহাপাড়া মহল্লার নুরু মিয়ার স্ত্রী মিনারা বেগম (৩০) ও পাশাপাশি বাড়ী খলিল বেপারীর ছেলে তেল ব্যবসায়ী বিপ্লব (৩৫) এর সাথে গত ৬ মাস ধরে অবৈধ প্রেমের সর্ম্পক চলে আসছিল। তাদের প্রেমের এই ঘটনা পরিবারের অনেকে জানতো এবং মিনারাকে নিষেধও করা হয়েছে। কিন্তু সে শোনেনি। বিপ্লবের সাথে যাতে মিনারা কোন ভাবেই যোগাযোগ করতে না পারে সে জন্য গত ১৫ দিন আগে নুরু তার স্ত্রী মিনারা ও সন্তানদের নিয়ে চলে যায়। গাজীপুরের বাঘের বাজারে সানু মিয়ার ওয়েলড্রিং মেশিনের দোকানে কাজ করত। কিন্তু দুরে গিয়েও রক্ষা হলো না। গভীর প্রেমের সম্পর্ক পরিনয়ে গড়াতে ৩ সন্তানের কথা চিন্তা না করে মিনারা ছোট মেয়েকে সাথে নিয়ে বিপ্লবের হাত ধরে পালিয়ে যায়। আর এ ঘটনায় জের ধরেই নুরু মল্লিক খুন হয়েছে বলে দাবী করছে মৃতের পরিবার।

নালিতাবাড়ী থানার এ এস আই নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা লাশ উদ্ধার করেছি এবং এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুই জনকে আটক করেছি।