ফুলবাড়ী সীমান্তে পাচারের হাত থেকে দুই তরুণী বিজিবি কর্তৃক উদ্ধার, নারীসহ আটক-২

Kurigramসৌরভ কুমার ঘোষ,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার গজের কুটি সীমান্ত দিয়ে পাচারের সময় বিজিবি দুই তরুণীকে উদ্ধার করেছে। এরা হলেন- গাইবান্ধা জেলার চক গোবিন্ধগঞ্জ পাঠান পাড়া গ্রামের বাদশা মিয়ার মেয়ে লাভলী খাতুন (১৮) ও একই গ্রামের শাহজাহান মিয়ার মেয়ে শান্তনা খাতুন (২১)। উদ্ধারকৃত তরুণীরা বর্তমান ফুলবাড়ী থানার হেফাজতে রয়েছে। বিজিবি এ সময় পাচারকারী সন্দেহে গাইবান্ধা জেলার চক গোবিন্দগঞ্জ গোহাটি গ্রামের তাজুল ইসলামের স্ত্রী যমুনা বেগম (২৫) ও কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার পূর্ব গজের কুটি গ্রামের আবদার আলীর ছেলে আব্দুর রশিদ মিয়াকে (৩৫) বিজিবি আটক করে ফুলবাড়ী থানা পুলিশে সোর্পদ করে। এদের দুই জনের বিরুদ্ধে ফুলবাড়ী থানায় শুক্রবার নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা হয়েছে। এদিকে এ ঘটনায় স্থানীয় ইউপি সদস্য ও বিজিবির লাইনম্যান হিসেবে পরিচিত শাহাদত হোসেন জড়িত রয়েছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে।

বিজিবি সুত্রে জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের গজের কুটি সীমান্তের আর্ন্তজাতিক পিলার ৯৩৫/৫ এস এর কাছে দুই তরুণী ও পাচারকারী দুই সদস্যকে দেখতে পেয়ে কুড়িগ্রাম ৪৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের বালারহাট বিওপির সদস্যরা তাদের আটক করে। আটককৃতদের কথা বার্তায় বোঝা যায় দুই তরুণীকে ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে তারা সীমান্তে নিয়ে এসেছিল।

কুড়িগ্রাম ৪৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের শিমুলবাড়ী কোম্পানী কমান্ডার সুবেদার মকবুল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রশিদ জানান, আটককৃত সন্দেহ ভাজন পাচারকারী যুবক ও মহিলার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের হয়েছে। উদ্ধারকৃত দুই তরুণী বর্তমানে থানা হেফাজতে রয়েছে।