ভারত সরকার চায় বাংলদেশও উন্নয়নশীল দেশ হোক : ডেপুটি হাই কমিশনার

Sapahar,Photo,05,5,14 (3)সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের ডেপুটি হাই কমিশনার সন্দীপ চক্রবর্ত্রী বলেছেন বাংলদেশ ও ভারতের মধ্যে আলোচনা হলে প্রথমে মহান মুক্তি যুদ্ধের প্রসঙ্গ আসবেই। মুক্তি যুদ্ধের মধ্য দিয়েই দু’দেশের সম্পর্ক অটুট হয়েছে। এ সম্পর্ক ভাঙ্গার নয়, ভারত বাংলাদেশের মধ্যে যে সু সম্পর্ক রয়েছে বির্শ্বে দ্বিতীয় কোন দেশে এত মধুর সম্পর্ক আর নেই। বর্তমানে বাংলাদেশ উন্নয়ন করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন বিশ্বের বুকে বাংলদেশও উন্নয়নশীল দেশ হোক ভারত সরকার এটা চায়। গতকাল সোমাবার দুপুর ১২টায় নওগাঁর সাপাহার উপজেলার জিরো পয়েন্টে বিজয় স্মৃতি স্তম্ভ চত্তরে অনুষ্ঠিত ভারত সরকারের সহায়তায় স্থাপিত ৪০০গভীর নলকুপের পানি সরবরাহের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথাগুলো বলেন। এসময় তিনি সাপাহারে স্থলবন্দর স্থাপন, দুদেশের সীমান্তের সমস্যা সমাধানেরও আশ্বাস প্রদান করেন। নওগাঁ-১আসনের  সংসদ সদস্য  সাধন চন্দ্র মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে নওগাঁ-৫ আসনের জাতীয় সংসদ বীর মুক্তি যোদ্ধা আঃ মালেক, নিয়ামত পুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এনামুল হক, পোরশা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনারুল হক, সাপাহার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শামসুল আলম শাহ চৌধুরী  উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিন মিঞা প্রমুখ বক্তব্য প্রদান করেন। বক্তব্য শেষে প্রধান অতিথি সাপাহার উপজেলার খঞ্জনপুরে সীমান্ত এলাকায় স্থল বন্দর এর জায়গা পরিদর্শনে যান। এসময় হাই কমিশনের পলিটিক্যাল কাউন্সিলর সুজিত ঘোষ, ও প্রকল্প কাউন্সিলর আর মাসাকুই তার সফর সঙ্গী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে প্রধান অতিথি পৃথিবীর ঐতিহাসিক নিদর্শন নওগাঁর পাহাড়পুর বৌদ্ধ বিহার পরিদর্শন করেন। এর মাধ্যমে ঠাঁঠাঁ বরেন্দ্র এলাকা হিসেবে পরিচিত নওগাঁর সাপাহার, পোরশা ও নিয়ামতপুর উপজেলা এলাকার দীর্ঘ দিনের বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহের সমস্য সমাধানের লক্ষে ভারত সরকারের পক্ষে ওই তিন উপজেলার ২০টি ইউনিয়নের প্রায় ৫০হাজার মানুষ উপকৃত হবেন বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন।