নিখোঁজ বিমানের ধ্বচংসাবশেষ বঙ্গোপসাগরে!

34954_MH-370বিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : নিখোঁজ মালয়েশিয়ার এমএইচ ৩৭০ জেট বিমানের ধ্বংসাবশেষ বঙ্গোপসাগরে পাওয়ার দাবি করেছে অস্ট্রেলিয়া নৌবাহিনীর অনুসন্ধানকারী অ্যাডিলেইডভিত্তিক প্রতিষ্ঠান জিওরেজন্যান্স। ভারত মহাসাগরের যে স্থানটিতে বিমানটির ধ্বংসাবশেষ খোঁজা হচ্ছে, সেখান থেকে ৫,০০০ কিলোমিটার দূরে বঙ্গোপসাগরে বিমানটির অস্তিত্ব শনাক্তের দাবি করছে প্রতিষ্ঠানটি। এনডিটিভি এখবর জানিয়েছে।

এর আগে একাধিকবার বিমানটির ধ্বংসাবশেষ পাওয়ার দাবি করে বিভিন্ন পক্ষ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দাবিগুলো ভুল প্রমাণিত হয়।

অ্যাডিলেইডভিত্তিক প্রতিষ্ঠান জিওরেজন্যান্স বলেছে, গত ১০ মার্চ থেকে নিখোঁজ বোয়িং-৭৭৭ বিমানটি উদ্ধারে তারা কার্যক্রম শুরু করেছিল এবং এ সময় তারা সম্ভাব্য ধ্বংসাবশেষ শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছে।

জিওরেজন্যান্সের এক মুখপাত্র পাভেল কুরসা এক বিবৃতিতে বলেছেন, বঙ্গোপসাগরে আমরা বোয়িং ৭৭৭ বিমানের রাসায়নিক উপাদান ও বেশ কয়েকটি বস্তু শনাক্ত করেছি।

তিনি বলেন, এ বস্তুগুলো হচ্ছে অ্যালুমিনিয়াম, টাইটেনিয়াম, কপার, স্টিল অ্যালয় ও অন্যান্য বস্তু।

প্রতিষ্ঠানটির আরেক মুখপাত্র ডেভিড পোপ জানিয়েছেন, জিওরেজন্যান্স ২০ লাখ বর্গকিলোমিটার এলাকায় অনুসন্ধান চালিয়েছে। বিভিন্ন স্যাটেলাইট ও বিমান থেকে পাওয়া ছবি বিশ্লেষণে প্রতিষ্ঠনটির বিজ্ঞানীরা ২০টিরও বেশি প্রযুক্তি ব্যবহার করেছেন। এর মধ্যে তারা একটি পারমাণবিক চুল্লিও ব্যবহার করেছেন।

তিনি দাবি করেন, তাদের প্রতিষ্ঠানে যে প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়, তা মূলত ওয়ারহেড ও সাবমেরিন শনাক্তের কাজে ব্যবহৃত হয়।

পোপ বলেছেন, বিমানটি নিখোঁজ হওয়ার তিন দিন আগের অর্থাৎ গত ৫ মার্চ পাওয়া ছবিগুলোর সাথে নতুন ছবিগুলোর তুলনামূলক বিশ্লেষণ করেছেন তারা।