কপিরাইট ও মেধাস্বত্ব সংরক্ষণে তরুণদের ভূমিকা বাড়ছে

BCIPF Groupবাংলাদেশের সৃজনশীল কাজগুলোর কপিরাইট ও মেধাস্বত্ব সংরক্ষণে তরুণদের ভূমিকা বাড়ছে। কারণ এধরণের কাজগুলোর উদ্ভাবক ও ব্যবহাকারীদের মধ্যে তরুণদের সংখ্যাই বেশি। বিষয়গুলো নিয়ে তাদের আরও জানাতে হবে। আন্তর্জাতিক মেধাস্বত্ব দিবস উপলক্ষে শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে আয়োজিত ইয়ুথ বুট ক্যাম্পে বক্তারা এসব কথা বলেন। ‘বাংলাদেশে সৃজনশীলতা ও উদ্ভাবনের কপিরাইট-মেধাস্বত্ব সংরক্ষণে তরুণদের ভূমিকা’ শীর্ষক এই ক্যাম্পের আয়োজন করে বাংলাদেশ কপিরাইট অ্যান্ড আইপি ফোরাম (বিসিআইপিএফ)। সহযোগী হিসেবে কপিরাইট অফিস, বাংলাদেশ, মাইক্রোসফট ও ইএমকে সেন্টার।
অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব রনজিত কুমার বিশ্বাস এনডিসি, বিশিষ্ট কপিরাইট বিশেষজ্ঞ মনজুরুর রহমান, উন্মাদ পত্রিকার সম্পাদক কার্টুনিস্ট আহসান হাবীব, মাইক্রোসফট বাংলাদেশের প্রতিনিধি রোমেসা হোসেন, জাগো ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা করভি রাকসান্দ, কপিরাইট অ্যান্ড আইপি ফোরামের চেয়ারম্যান কাজী জাহিন হাসান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ব্যারিস্টার এবিএম হামিদুল মিজবাহ। ক্যাম্পের শুরুতেই তরুণদের উদ্দেশ্যে কপিরাইট ও মেধাস্বত্বের নানা দিক নিয়ে আলোচনা করেন বিশিষ্ট কপিরাইট বিশেষজ্ঞ মনজুরুর রহমান।

বাংলাদেশ কপিরাইট ও আইপি ফোরামের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ব্যারিস্টার এবিএম হামিদুল মিজবাহ বলেন, উদ্ভাবকদের কপিরাইট ও মেধাস্বত্ব সংরক্ষণে তরুণরা সবসময় উদ্যোগী। এর সঙ্গে কপিরাইট ও মেধাস্বত্বের সঙ্গে তরুণরা সরাসরি জড়িত। সংরক্ষণেও তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন। এজন্য বিসিআইপিএফ এর ভলেন্টিয়ার ফর আইপি’র সদস্যরা কাজ করে যাচ্ছে।

উন্মাদ পত্রিকার সম্পাদক কার্টুনিস্ট আহসান হাবীব বলেন, সৃজনশীলতা সব মানুষের মাঝেই আছে। কেউ ব্যবহার করে, কেউ করে না। যারা সৃজনশীলতাকে ভালো কাজে ব্যবহার করেন তারাই এগিয়ে যান।

তরুণদের ওপেন সোর্স সফটওয়্যার ব্যবহারের আহ্বান জানিয়ে কপিরাইট অ্যান্ড আইপি ফোরামের চেয়ারম্যান কাজী জাহিন হাসান বলেন, পাইরেসি থেকে তরুণদের দূরে থাকতে হবে। ওপেন সোর্স অনেক সফটওয়্যার আছে। সেগুলো ব্যবহারে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

দিনব্যাপী এই ক্যাম্পে বিসিআইপিএফ এর অনুপ্রেরণায় গঠিত ভলেন্টিয়ার ফর আইপি’র শতাধিক সদস্য অংশগ্রহণ করেন। যারা দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। #