রূপালী ব্যাংক দিনাজপুর বিরল শাখায় ৫ লাখ টাকার জাল পে-অর্ডার আটক

dinajpur-14-150x150নুরুন্নবী বাবু দিনাজপুর প্রতিনিধি :

দিনাজপুরের বিরল উপজেলায় রূপালী ব্যাংক শাখায় ৫ লাখ টাকার জাল পে-অর্ডার আটক করা হয়েছে। আটক জাল পে-অর্ডার ২টি এর সাথে জড়িত স্থানীয় বিরল থানা আওযামী লীগ নেতা মোশাররফ হোসেন মানিক বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, সোমবার বিরল উপজেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মোশাররফ হোসেন মানিক ঠিকাদারী কাজ করে আসছিলেন। বিরল পৌরসভার হাট ইজারার জন্য ৫ লাখ টাকা দেয়ার কথা। মোঃ মোশাররফ হোসেন মানিক বিরল রূপালী ব্যাংক থেকে ১টি শ ও অপরটি ৩শ টাকার পে-অর্ডার নেয়। উক্ত ২টি পে-অর্ডার কে কলম দিয়ে ওভার রাইটিং করে ২ লাখ ও ৩ লাখ টাকা বানিয়ে সোনালী ব্যাংক বিরল থানায় জমা দেয়। উক্ত ২টি পে-অর্ডার রূপালী ব্যাংক শাখায় কালেকশনে আসলে জালিয়াতির ঘটনা ধরা পড়ে। রূপালী ব্যাংক ব্যবস্থাপক শাহ সুফিয়ান জানান, মোঃ মোশাররফ হোসেন মানিক একজন স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা হলেও ব্যাংকের কারণ দর্শানো হয়েছে এবং পে-অর্ডারটি ফেরত নেয়া হয়েছে। তবে বিষয়টি শুধুমাত্র থানা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল খায়রুমকে মোবাইলে জানানো হয়েছে। জাল পে-অর্ডারের সাথে ব্যাংকের কেউ জড়িত নয়। জাল পে-অর্ডারের বিষয়টি সাংবাদিকদের মধ্যে জানাজানি হলে বিকেল ৪টার আগেই রূপালী ব্যাংকের কলাপসেবল গেট লাগিয়ে দেয়া হয়। এদিকে থানা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল খায়রুম জানান, রূপালী ব্যাংক ব্যবস্থাপক জাল পে-অর্ডারের বিষয়টি আমাকে জানালে আমি ব্যাংক ব্যবস্থাপককে মামলা করার নির্দেশ দিয়েছি বলে তিনি জানান। এদিকে মোঃ মোশাররফ হোসন মানিকের সাথে মোবাইলে যোগাযোগের চেস্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। এব্যাপারে বিরল থানার ওসি রেজাউল করিম সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ব্যাংকের পে-অর্ডারের জালিয়াতির ব্যাপারে এখনও থানায় কেউ অভিযোগ দায়ের করেননি। অভিযোগ দায়ের করা হলে সে যতই বড় শক্তিশালী হোক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।##