গোবিন্দগঞ্জে ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন না থাকায় কোটি টাকার সম্পদ পুড়ছে

gaibandha-01গাইবান্ধা  থেকে মোঃ আঃ খালেক মন্ডলঃ
স্বাধীনতার ৪৩ বছর অতিবাহিত হওয়ার পরও গোবিন্দগঞ্জবাসীর দীর্ঘ দিনের প্রানের দাবি আজও পুরণ হয়নি স্থাপন হয়নি ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন। যার কারণে প্রতি বছর পুড়ছে কোটি টাকার সম্পদ। গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা ১৭টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় কমপক্ষে ৪ লক্ষাধিক মানুষের বসবাস। স্বাধীনতার পর থেকে গোবিন্দগঞ্জ বাসির প্রাণের দাবী ১ টি ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের। কিন্তু আজও তার বাস্তবায়ন হয়নি। যার কারণে প্রতিবছর উপজেলা শহর সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ হাট বাজার এবং গ্রাম গঞ্জে আগুনে পুড়ে ভষ্মিভূত হচ্ছে কোটি কোটি টাকার সম্পদ। গাইবান্ধা হতে গোবিন্দগঞ্জ  উপজেলার দূরত্ব ৩৫ কিলোমিটার এবং ও ইউনিয়নের দূরত্ব ২৫ কিলোমিটার। এই উপজেলায় বড় ধরনের অগ্নিকান্ড সংঘটিত হলে গাইবান্ধা হতে দমকল বাহিনীর গাড়ী পৌছার পূর্বেই তা পুড়ে ছাই হয়ে যায়। বর্তমানে বিশ্বয়ায়নের যুগে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহ সকল বিষয়ে উন্নতি সাধিত হওয়ার পরও আজ পর্যন্ত এলাকাবাসীর এ দাবী পূরণ হয়নি। ভৌগোলিক দিক থেকে গোবিন্দগঞ্জ বৃহত্তর রংপুর জেলার অতীব গুরুত্বপূর্ণ স্থান। দূরুত্বের প্রশ্নে বগুড়া রংপুর এর মাঝামাঝি ঢাকা দিনাজপুর মহাসড়কের উপর অবস্থিত। এখান থেকে  গোবিন্দগঞ্জ ও ঘোড়াঘাট উপজেলায় যেতে সময় লাগে মাত্র ১০মিনিট। বগুড়ার মহাসড়কের উপর কোন অগ্নি নির্বাপক কেন্দ্র না থাকায় মূহুর্তের জন্য ব্যবসায়ী সহ সাধারণ মানুষ অগ্নিকান্ডে সর্বশান্ত হচ্ছে। গোবিন্দগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস কেন্দ্র স্থাপন করা হলে দ্রুত কার্যকরী ব্যবস্থার মাধ্যমে এলাকা গুলো অগ্নিকান্ডের ভয়াবহ ক্ষতিগ্রস্থের হাত থেকে রক্ষা পাবে বলে এলাকার সচেতন মহল সংশ্লিষ্ট বিভাগের মাননীয় মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করছেন।