বহুদিন পর দৃশ্যপট পরিবর্তন খুমেক হাসপাতালের সামনের

khulna_medicaleখুলনা ব্যুরো ঃ বহুদিন পর পাল্টে গেল খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনের দীর্ঘদিনের দৃশ্যপট। হাসপাতালে প্রবেশের প্রধান গেটে এতদিন যেখানে ছিল ছোট খাট কিছু অবৈধ স্থাপনা, সব সময়ই যেখানে জটলা লেগে থাকত তা’ গত মঙ্গলবার উচ্ছেদ করা হয়েছে।আর এ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের পেছনে মূল ভূমিকা পালন করেছে সোনাডাঙ্গা মডেল থানা পুলিশ। গত বুধবার খুমেক হাসপাতালের সামনে গিয়ে দেখা যায়, বুলডোজার দিয়ে পুলিশ সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে পুরো এলাকা পরিষ্কার করেছে। শুধুমাত্র একটি রাজনৈতিক দলের অফিস ও যাত্রী ছাউনি ঘিরে গড়ে ওঠা একটি ওষুধের দোকান ছাড়া সেখানে কোন চা দোকান, পান দোকান, ফলের দোকান বা অন্য কোন দোকান নেই। এ ব্যাপারে সোনাডাঙ্গা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মারুফ আহমেদ বলেন, তার থানা এলাকায় কোন প্রকার অবৈধ স্থাপনা ও মাদক ব্যবসা থাকবে না। তবে এজন্য জনগণের সহযোগিতা প্রয়োজন। কারও দ্বারা প্ররোচিত না হয়ে নিজ উদ্যোগে জনস্বার্থেই তিনি এ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছেন বলেও জানান। প্রসঙ্গত, খুমেক হাসপাতালের সামনের এসব অবৈধ স্থাপনার কারণে সেখানে প্রায়ই জটলা লেগে যেত। ছোট-খাট দুর্ঘটনাও ঘটত ওই স্থানে। কয়েক বছর আগে হাসপাতালের এক কর্মী দুর্ঘটনায় তার পা হারান। চা-পান দোকানের আশ-পাশে দাঁড়িয়ে থেকে সামনের প্যাথলজীর দালালরাও দূর-দূরান্ত থেকে আসা রোগীদের ভাগিয়ে নিজস্ব প্যাথলজীতে নিয়ে যেত। অবশ্য অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ হলেও এখনও হাসপাতালের প্রধান গেটে যানবাহনের জটলায় আবারও পরিবেশ বিঘিœত হচ্ছে। এজন্য সেখানে একজন ট্রাফিক পুলিশ নিয়োজিত করারও দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী। সেই সাথে দুর্ঘটনা রোধে গতি নিয়ন্ত্রক স্থাপন জরুরী বলেও এলাকাবাসী মনে করছেন।