খুলনায় আইনজীবী হত্যায় ১৮ জনের যাবজ্জীবন

khulna-001খুলনা ব্যুরো ঃ খুলনার দাকোপ উপজেলার লাউডোব গ্রামে আইনজীবী দুর্গাপদ মন্ডল হত্যার অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় ১৮ আসাীমর প্রত্যেককে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছেন আদালত। নিহত দুর্গাপদ মন্ডল খুলনা জেলা জজ আদালতের আইনজীবী ছিলেন।বুধবার খুলনা বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মদীনা বেগম এ দন্ড প্রদান করেন।আদালতের সূত্র জানান, ২০০০ সালের ২১ জুলাই দাকোপের লাইডোবে নিজ জমির কৃষিকাজ দেখতে গেলে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন আইনজীবী দুর্গাপদ মন্ডলকে। ২৪ জুলাই তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান। তার মৃত্যু হতে পারে এই আশঙ্কায় আইনজীবী দুর্গাপদ মন্ডল তার ভাইপো তপন মন্ডলের মাধ্যমে ২০ জনকে আসামী করে লিখিত এজাহার দাখিলের মাধ্যমে দাকোাপ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার এসআই চৌধুরী আহাদুজ্জামান ২০০৫ সালের ৬ নভেম্বর ১৯ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। ২৬ জন সাক্ষীর মধ্যে ১১ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত এই দন্ড প্রদান করেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন অরুন বিশ্বাস, সুনীল বৈদ্য, নৃপেন বিশ্বাস, বিনয় সরদার, অমর সরদার, জয়ন্ত সরদার, মাধব বিশ্বাস, ভোলা সরদার, বীরেন্দ্র নাথ ওরফে গিরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস, পুলিন বিশ্বাস, সুধাংশু মন্ডল, সুভাষ মন্ডল, বাসুদেব সরকার, তাপস বিশ্বাস, বিধান মন্ডল, আব্দুল মজিদ ওরফে মালু (পলাতক), গোবিন্দ বিশ্বাস (পলাতক) ও দীপক সরদার (পলাতক)। অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় উত্তম সরকার নামক এক আসামীকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন আইনজীবী মোস্তফা ইউনুস এবং সরকার পক্ষে ফরিদ আহমেদ।