তাহিরপুরে জ্বিন তাড়ানোর আগুনে শিশুদগ্ধ, ভন্ড কবিরাজকে জেলে প্রেরণ

indexঅরুন চক্রবর্তী, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ
সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুরে জ্বিন তাড়ানোর কথা বলে এক শিশুকে আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এঘটনায় এক ভন্ড কবিরাজকে আটক করে শনিবার সকাল ১১টায় জেলহাজতে প্রেরন করেছে পুলিশ। অগ্নিদগ্ধ শিশুর নাম ফাহমিদা আক্তার (৮)। সে উপজেলার দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নের পাটাবুকা গ্রামের পারবেজ মিয়ার মেয়ে। আটক ভন্ড কবিরাজের নাম কামাল হোসেন। তিনি ময়মনসিংহ জেলার তারাকান্দা উপজেলার কলোরী গ্রামের আহমদ আলীর ছেলে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার রাত ৮টায় শিশু ফাহমিদার বুকে ও পেটের ব্যথা অনুভব হলে তার বাবা-মাকে ভন্ড কবিরাজ কামাল হোসেন জ্বিনে আছর করেছে বলে জরুরী ভিত্তিতে তার কাছে চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দেয়। পরে ভন্ড কবিরাজের কথামতো রাতেই পাশ্ববর্তী রতনশ্রী গ্রামের দুলাল মিয়ার বাড়িতে অবস্থিত আস্তানায় শিশুটি নিয়ে যায়। তখন ঘরের দরজা,জানালা বন্ধ করে ওই ভন্ড কবিরাজ চিকিৎসা শুরু করলে শিশু ফাহমিদা চিৎকার শুরু করে। পরে তাড়াতাড়ি সবাই ঘরের ভিতর প্রবেশ করে দেখতে পায় আগুন দিয়ে শিশুটি বুক ও পেট জ্বলসে দেয়া হয়েছে। এসময় শিশুটি জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয়। এঘটনার খবর পেয়ে রাতেই ভন্ড কবিরাজ কামাল হোসেনকে পুলিশ আটক করে। বর্তমানে শিশুটি মূমূর্ষ অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। তাহিরপুর থানার ওসি আনিসুর রহমান খান এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,ভন্ড কবিরাজের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আজ শনিবার সকালে সুনামগঞ্জ জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় পুরো উপজেলায় ব্যাপক চাঞ্চলের সৃষ্টি হয়েছে।##