‘বিকিনি তো দুরের কথা, স্লিভলেস ব্লাউজও পরিনি কোনও দিন’

waheeda_64628বিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : বিকিনি তো দুরের কথা, সিনেমায় কোনও দিনই স্লিভলেস ব্লাউজও পরেননি গত শতকের পঞ্চাশের দশকের রূপালি পর্দা কাঁপানো নায়িকা ওয়াহিদা রহমান, তিনি নিজেই একথা জানিয়েছেন।

ওয়াহিদা জানিয়েছেন, ক্যারিয়ারের শুরুতে প্রখ্যাত পরিচালক গুরু দত্তের সঙ্গে তার তিন বছরের চুক্তি হয়েছিল। আর ওই চুক্তিপত্রেই একটি বিশেষ ধারা যোগ করে নিয়েছিলেন তিনি। আর ওই ধারা অনুযায়ী, সিনেমায় কোন ধরনের পোশাক পরবেন তা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত তিনিই নেবেন। নারীন মুন্নি কবীরের লেখা ‘কনভারসেশন উইথ ওয়াহিদা রহমান’ বইয়ের আনুষ্ঠানিক প্রকাশ অনুষ্ঠানে ওয়াহিদা একথা জানিয়েছেন।

তখন ওয়াহিদার বয়স ১৮। গুরু দত্ত তার সিনেমার জন্য নায়িকা হিসেবে ওয়াহিদাকে বেছে নেন। গুরু দত্তের সিনেমা দিয়েই ক্যারিয়ার শুরু তার। এজন্য তিন বছরের একটি চুক্তিপত্র হয়েছিল। কিন্তু সবকিছু চূডান্ত হওয়ার আগে ওয়াহিদা সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন, কোনও পোশাক পছন্দ না হলে তিনি তা পরবেন না। এই ধারা চুক্তিতে রাখা হোক। তখন গুরু দত্ত জিজ্ঞেসা করেছিলেন, ওয়াহিদা তার সিনেমা দেখেছেন কিনা। ওয়াহিদার উত্তর ছিল, না। তখন গুরু দত্ত এ বিষয়ে আলোচনার আগে ওয়াহিদাকে তার সিনেমাগুলো দেখতে অনুরোধ করেন।

গুরু দত্তের সিনেমাতে পোশাকের ব্যবহারে খারাপ কিছু দেখতে না পেলেও চুক্তিপত্রে ওই বিশেষ ধারা যোগ করার জিদে অনড় থাকেন ওয়াহিদা। শেষ পর্যন্ত তার ইচ্ছাই বহাল থাকে।

ওয়াহিদা বলেছেন, বিকিনি পরার মতো ফিগার ছিল না তার। সেজন্য তিনি কোনও দিন বিকিনি পরতে চাননি। একই সঙ্গে তিনি বলেছেন, সিনেমা, এমনকি এমনি ব্যক্তিগত জীবনেও তিনি স্লিভলেস ব্লাউজও পরেননি। তাই বিকিনি পরার কোনও প্রশ্নই আসে না।

শুধু পোশাই নয়, সিনেমায় নেমে নাম বদলে নেয়ার ক্ষেত্রেও আপত্তি ছিল। তিনি জানিয়ে দিয়েছিলেন, বাবা-মার দেয়া নাম বদল করতে পারবেন না। তার অনুপম সৌন্দর্য্যরে গোপন চাবিকাঠি সম্পর্কে তিনি বলেছেন, আমি খুব সন্তুষ্ট আর খুশি। আর আমি মনে করি সুখই যে কোনও কিছুর জন্য যথেষ্ট ।