মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকীর বিচার দাবিতে প্রকৌশলী সমিতির কর্মসূচি ঘোষণা

taaingail-1টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :
উপ-সহকারি প্রকৌশলীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর বিচার দাবিতে টাঙ্গাইল জেলা ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতি সাত দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। শনিবার বিকালে  ডিপ্লোমা প্রকৌশলী টাঙ্গাইল জেলা শাখা কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেয়। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন, মানববন্ধন, কালোব্যাজ ধারণ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) টাঙ্গাইল কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ, বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান ইত্যাদি। জেলা ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতির সভাপতি মো. রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে এক প্রতিবাদ সভায় ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানানো হয়। প্রতিবাদ সভায় বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের কালিহাতীর নির্বাহী প্রকৌশলী নূরে আলম, টাঙ্গাইলের নির্বাহী প্রকৌশলী(২) মো. হায়দার আলী ফকির প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের জেলা ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতির সভাপতি লিখিত বক্তব্যে জানান, শুক্রবার রাতে কালিহাতী বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারি প্রকৌশলী পূণ্য চন্দ্র পাল দুইজন লাইনম্যান নিয়ে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ডাক , টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর কালিহাতীর বাসায় যান।

১১ কেভি ইছাপুর ও কামার্থী ফিডারের বিদ্যুতের লোডশেডিং ও ৩৩/১১ কেভি, ১০ এমবিএ পাওয়ার ট্রান্সফরমার বরাদ্দ ও কমিশনিং কাজে অগ্রগতির বর্ণনা দেয়ার সময় হঠাৎ মন্ত্রী ক্ষিপ্ত হয়ে পূণ্য চন্দ্র পালকে লাঠিপেটা করে মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম করেন। পরে সঙ্গে থাকা লাইনম্যানরা তাকে কালিহাতী হাসপাতালে নিয়ে যান।

সভায় এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হওয়া পর্যন্ত ডিপ্লোমা প্রকৌশল সমিতি এবং আইডিইবি, টাঙ্গাইল জেলা শাখার সমন্বয়ে ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির অনুমোদনক্রমে ৭ দিনব্যাপী আন্দোলনের বিভিন্ন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।