সুনামগঞ্জের ছাতকের জালালপুর-লামারসুলগঞ্জ সড়কের বেহাল দশা

sunamganj-18অরুন চক্রবর্তী, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ
সুনামগঞ্জের ছাতকের দক্ষিণাঞ্চলের ৪টি ইউনিয়নবাসীর দুঃখের কারন হয়ে দাঁিড়য়েছে জালালপুর-দোলারবাজার-লামারসুলগঞ্জ সড়ক। সড়ক সংস্কার হওয়া না হওয়ার দোলাচলে কেটে গেল বর্তমান সরকারের সাড়ে ৪ বছরের অধিক সময়। ৪টি ইউনিয়নের কয়েক লক্ষাধিক মানুষ বর্তমান সরকারের আমলে সড়ক সংস্কার হওয়ার আশা ছেড়ে দিলেও সম্প্রতি হতাশার অথৈ সাগরে কিঞ্চিত আশার আলো দেখতে পেরেছে। আবারো সড়কটি সংস্কারের আশায় অপেক্ষার প্রহর গুনছে ৪ ইউনিয়নের অর্ধশতাধিক গ্রামবাসী। ঈদের পর-পরই বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে সড়কটির সংস্কার কাজ শুরু হবে- এমন কথাই জানালেন সংশ্ল্ষ্টি কর্মকর্তারা। ছাতকের দক্ষিণাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ন জালালপুর-দোলারবাজার-লামারসুলগঞ্জ সড়ক। উপজেলার দক্ষিণ খুরমা, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও, ভাতগাঁও, দোলারবাজার ইউনিয়নের কয়েক লক্ষ মানুষের জেলা ও বিভাগীয় শহরের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করার প্রধান সড়ক। প্রায় ৭ বছর ধরে সড়কটি সংস্কারের অভাবে এসব এলাকার মানুষ চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছে। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে বিভিন্ন সামাজিক ও পেশাজীবি সংগঠনের মাধ্যমে সভা-সমাবেশ ও মানব বন্ধন করে সড়ক সংস্কারের দাবী তুলে আসছে। কিন্তু সরকারের মেয়াদ প্রায় শেষের দিকে চলে আসলেও সড়ক সংস্কার এখনও সম্ভব হয়ে উঠেনি। এ সড়ক নিয়ে দক্ষিণাঞ্চলবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। আগামী দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জালালপুর-লামারসুলগঞ্জ সড়ক সংস্কারের বিষয়টি অন্যতম ইস্যু হিসেবে দাড়াতে পাড়ে বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করছেন। বর্তমানে এ সড়ক দিয়ে সম্পূর্ন ঝূকি নিয়ে যাত্রী সাধারণ চলাচল করছে। জালালপুর পয়েন্ট থেকে মঈনপুর পর্যন্ত সড়কটি অত্যন্ত নাজুক অবস্থায় রয়েছে। গোটা সড়কজুড়েই খানা-খন্দে ভরপুর। মাঝে-মধ্যে বড়-বড় গর্তের কারনে প্রতিদিনই ঘটে যাচ্ছে ছোট-বড় দূর্ঘটনা। প্রায় আধঘণ্টার পথ আড়াইঘন্টা সময় নিয়ে যাত্রী সাধারণ চলাচল করছে। সন্ধ্যার পরে এ সড়ক দিয়ে প্রায় যানচলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। বিচ্ছিন্নভাবে দু’একটি গাড়ী চললেও যাত্রী সাধারণকে দ্বিগুন ভাড়া গুনতে হয়। গত ১৬ মার্চ অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত জালালপুর-লামারসুলগঞ্জ সড়ক সংস্কারের কাজ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেও বিগত সাড়ে ৩ মাসে সড়ক সংস্কার কাজের কোন লক্ষন দেখতে পাচ্ছেনা দক্ষিণ ছাতকবাসী। ফলে বর্তমান সরকারের আমলে এ সড়ক সংস্কারের কাজ সম্পন্ন না হওয়ার আশংকাই করছে এলাকাবাসী। কিন্তু নিরাশা ও হতাশার মধ্যে আবারো এতটুকু আশার আলো ফুটে উঠেছে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের মধ্যে। নিবাচনে পর জালালপুর-দোলারবাজার-লামারসুলগঞ্জ সড়ক সংস্কারের কাজ দুটি ধাপে সম্পন্ন হওয়ার খবর এখন এলাকায় মুখে-মুখে শুনা যাচ্ছে। স্থানীয় মেম্বার আবুল খয়ের জানান, নিবাচনে পরে সড়ক সংস্কারের কাজ পুরোদমে শুরু হবে একথা তাদের স্থানীয় সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক জানিয়েছেন। উপজেলা প্রকৌশলী জানান, বিশ্বব্যাংকের জটিলতার কারনে সড়ক সংস্কারের কাজটি দীর্ঘায়িত হয়েছে। বার-বার পিছিয়ে গেছে সংস্কার কাজ।##