জমে উঠেছে সেনবাগে ডমুরুয়া ইউপির উপ-নির্বাচন

Senbag U.p Eletion 27 March 2014 (1)নোয়াখালী প্রতিনিধি: আগামী ৩০মার্চ অনুষ্ঠেয় নোয়াখলীর সেনবাগ উপজেলার ৩নং ডমুরুয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন দারুন জমে উঠেছে। চেয়ারম্যান প্রার্থীদের পোষ্টার,ফেস্টুন ও লিফলেটে ছেয়ে গেছে ইউপির আনাছে কানাছে। শেষ মুহুর্তের প্রচার প্রচারণায় মহা ব্যাস্ত সময় অতিবাহিত করছেন প্রার্থীরা। গত ২ডিসেম্বর ২০১৩ ইং তারিখে ডমুরুয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা কামরুল ইসলাম ইন্তেকাল করলে পদটি শূন্য হয়। এরপর ১৯ ফেব্র“য়ারী মঙ্গলবার সেনবাগ উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটানিং অফিসার আবদুল করিম আনুষ্ঠানিকভাবে উপ-নির্বাচনের এ তফসিল ঘোষনা করেন। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ৩মার্চ প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিল, ৫মার্চ মনোনয়নপত্র বাচাই, ১০মার্চ প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন এবং ৩০ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠানের দিন দার্য করেন।

নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য ১১প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিলেও এদরে মধ্যে ৯জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হচ্ছে: সাবেক চেয়ারম্যান ওয়ালিউর রহমান (টেবিল), সাখাওয়াত উল্লাহ (দোয়াত-কলম),জসিমউদ্দিন আজাদ(মোটর-সাইকেল),অহিদুর রহমার ওয়াদুদ (কাপ-পিরিছ),আনোয়ার হোসেন(চাঁদ),শওকত হোসেন (টেলিফোন), এনামূল হক (আনারস), গিয়াসউদ্দিন (মাইক), হাজ্বী ইদ্রিস (জাহাজ), এদের মধ্যে মোহাম্মদ ইব্রাহিম (তালা) ও মানিক ভূইয়া(চশমা) অহিদুর রহমানকে সমর্থন করে নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে দাড়িয়েছেন।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানাগেছে, এখানে মূলত প্রতিদ্বন্দ্বিাতা হবে ত্রি-মুখি। সাবেক চেয়ারম্যান ওলিউর রহমান-সাখাওযাত উল্লা ও জসিমউদ্দিন আজাদের মধ্যে। অপরদিকে একই দিনে ৬নং কাবিলপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচনও অনুষ্ঠিত হবে। ২৬ডিসেম্বর ২০১৩ইং স্থানীয় মেম্বার নুরুন নবী মারা গেলে আসনটি শূন্য হয়। এখানে তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হচ্ছে: সাবেক মেম্বার আবু নাছের (মোরগ), মোহাম্মদ ওয়ালীউল্লাহ (টিউবওয়েল) ও মোহাম্মদ হারুন (বৈদ্যুতিক-পাখা)।এদের মধ্যে আবু নাছের ও মোহাম্মদ হারুনের মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বলে এলাকাবাসী ও ভোটারদের সঙ্গে আলাপ করে জানাগেছে। নির্বাচন অফিস সুত্রে জানাগেছে:ডমুরুয়াতে মোট ভোটার হচ্ছে-১৮৬১১জন।এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ৮হাজার ৯শত ও নারী ভোটার ৯হাজার ৭শত ১১জন।