বিএনপির নির্বাচন বর্জনের কারণ জানতে চেয়েছেন ইইউ প্রতিনিধি

16444_euবিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : ৫ই জানুয়ারির নির্বাচনে বিএনপির নেতৃত্বাধীন জোট কেন যায়নি সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের কাছে তা জানতে চেয়েছেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিরা। আজ দুপুরে রাজধানীর সোনারগাঁ হোটেলে সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে তারা এ বিষয়ে জানতে চান। জবাবে সুশীল সমাজের কয়েকজন প্রতিনিধি জানিয়েছেন, কারচুপি ও শক্তি প্রয়োগের আশঙ্কা থেকে তারা নির্বাচনে যায়নি। তাদের এ আশঙ্কা যে সত্য ছিল তা উপজেলা নির্বাচনে দখল ও সহিংসতার মাধ্যমে প্রমাণ হয়েছে। বৈঠকে রাজনৈতিক পরিস্থিতি, গুম, খুন ও মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে একজন প্রতিনিধি বলেন, আমি নিজে কয়েক দিন জেলখানায় ছিলাম। সেখানে লোকজনকে নির্যাতন করা হয়। সুশীল সমাজের একজন প্রতিনিধি বলেন, নির্বাচন কমিশনসহ সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলো স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছে না। এটি সুশাসন প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে বড় বাধা। বৈঠকে সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের মধ্যে ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য, ফারুক সোবহান, মেজর জেনারেল অব. মুনিরুজ্জামান, ড. ইফতেখারুজ্জামান, আদিলুর রহমান খান ও সঞ্জিব দ্রং অংশ নেন। ইইউ প্রতিনিধি দলের প্রধান জিন ল্যাম্বার্টসহ অন্য সদস্যরা বৈঠকে অংশ নেন।
বৈঠক শেষে ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য জানান, সার্বিক বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বৈঠকে। নতুন নির্বাচনের বিষয়ে কোন আলোচনা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিরা জানিয়েছেন, তাদের রেজুলেশনে দুটি বিষয় স্পষ্ট ছিল। কার্যকর সংলাপ ও সবাইকে নিয়ে নির্বাচন করার কথা বলা হয়েছিল রেজুলেশনে। এখনও ইইউ আগের অবস্থানেই আছে। দেবপ্রিয় বলেন, নির্বাচনতো হবে। তার আগে জীবন চলতে হবে। আইনের শাসন  ও মানবাধিকার রক্ষা করতে হবে। এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।