ফুলবাড়ী সীমান্তে বিজিবি বিএসএফের ব্যাটালিয়ন পর্যায়ে পতাকা বৈঠক বাংলাদেশী হত্যার প্রতিবাদ

korigramসৌরভ কুমার ঘোষ,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তে ভারত-বাংলাদেশের সীমান্ত সংক্রান্ত বিজিবি-বিএসএফের ব্যাটারিয়ন পর্যায়ের দীর্ঘ সময় ব্যাপী পতাকা বৈঠক ফুলবাড়ী উপজেলার বিদ্যাবাগিশ সীমান্তের ৯৩৯/৫ এস আর্ন্তজাতিক পিলার সংলগ্ন ভারত অভ্যান্তরের ভোনাথপুর শিশু বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২২ মার্চ শনিবার সকাল ১১টা থেকে শুরু হওয়া এ পতাকা বৈঠকের কার্যক্রম চলে ২৩ মার্চ গভির রাত ১ টা পর্যন্ত। এ পতাকা বৈঠকে নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশের পক্ষে কুড়িগ্রাম ৪৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার লেঃ কর্নেল তোফাজ্জল হোসেন আকন্দ ও ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেন কুচবিহার ১২৪ বিএসএফ ব্যটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার শ্রী ইন্দ্র প্রকাশ ভাটিয়া। পতাকা বৈঠকের মুল এজেন্ডায় ছিল- সীমান্ত হত্যা বন্ধ, অনুপ্রবেশ, মাদক পাচার বন্ধ, ১৫০ গজের মধ্যে অবৈধ ভাবে স্থাপনা নির্মান বন্ধ, সীমান্তের রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ ও কাঁটাতারের বেড়া নির্মানে সীমান্ত আইন মানা প্রভৃতি। এ ব্যপারে কুড়িগ্রাম ৪৫ বিজিবি ব্যটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার লেঃ কর্নেল মোফাজ্জল হোসেন আকন্দ এ প্রতিনিধিকে জানান, পতাকা বৈঠকে মুল এজেন্ডা গুলোর আলোচনার সাথে বিজিবির পক্ষ থেকে ১ মার্চ ফুলবাড়ী সীমান্তে বিএসএফ কর্তৃক নির্যাতনে বাংলাদেশী যুবক মাহমুদুল হক মুকুল হক হত্যার তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। পাশা পাশি ফেলানি হত্যার পূন বিচারের দাবি জানানো হলে বিএসএফ মামলার রিভিউ প্রসেসিং করার জন্য ফেলানীর বাবা নুর ইসলাম ও মামা আব্দুল হানিফকে ভারতে পাঠানোর আহবান জানায়।