জয়পুরহাটে চোরাকারবারীদের হামলায় ২ সাংবাদিকসহ আহত ৩

joypurhatজয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ
জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার চেঁচড়া সীমান্তে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে এনএসআইয়ের এক কর্মকর্তাসহ ইলেকট্রনিক মিডিয়ার দুই সাংবাদিক চোরাকারবারীদের হামলায় মারাত্মক আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে পাঁচবিবি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সে সময় তাদের ব্যবহৃত ক্যামেরা ও ল্যাপটপও ছিনিয়ে নেয় চোরাকারবারীরা। সোমবার বেলা ২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলো এটিএন বাংলার সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম রফিক, ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের সাংবাদিক আবেদুল মোমেন মুনি এবং এনএসআইয়ের কর্মকর্তা তৌহিদ। এদের মধ্যে সাংবাদিক রফিকের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, সোমবার বেলা ২টার দিকে একটি প্রাইভেট কার যোগে এনএসআইয়ের ওই কর্মকর্তাসহ এটিএন বাংলা ও ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের দুই সাংবাদিক চেঁচড়া সীমান্তে পৌছে। সেখানে তারা চোরাচালানের উপর সংবাদ সংগ্রহ ও ভিডিওচিত্র ধারন করার সময় চোরাকারবারীরা তাদের উপর আকর্ষিক হামলা চালায়। এতে ওই তিনজনই মারাত্মক আহত হয়। এসময় চোরাকারবারীরা তাদের ব্যবহৃত ক্যামেরা ও ল্যাপটপও ছিনিয়ে নেয়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

এটিএন বাংলার সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম রফিক বলেন, সীমান্তে দীর্ঘদিন ধরে ভারতীয় পন্য চোরাচালান হয়ে আসছে। যা দিন দিন বৃদ্ধি পেয়েই চলেছে। আমরা এ সংক্রান্ত সংবাদ সংগ্রহ করতে চেচড়া সীমান্তে যাই। সেখানে ভিডিও চিত্র ধারন করার সময় চোরাকারবারীরা হামলা চালায়। এতে আমি সহ তিনজনই আহত হই।

পাঁচবিবি থানার অফিসার ইনচার্জ আবু হেনা মোস্তফা কামাল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে দৃুত ঘটনাস্থলে পৌছে আহত সাংবাদিকদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করি। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।