অপপ্রচার চালিয়ে ছাত্রশিবিরকে দমানো যাবে না : শিবির

cp-jnu1বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি আবদুল জব্বার বলেছেন, ইসলামের সুমহান আদর্শকে ছাত্রশিবিরের নেতাকর্মীরা ধারণ করে বলেই এই সংগঠন ছাত্রসমাজের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। ইসলামের প্রচার ও প্রসারে এই পবিত্র সংগঠনের নেতাকর্মীরা নিরলস কাজ করছে। অপপ্রচার চালিয়ে ছাত্রশিবিরকে দমানো যাবে না।

আজ শুক্রবার সকাল ৯টায় রাজধানীর এক মিলনায়তনে ইসলামী ছাত্রশিবির জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা আয়োজিত ওয়ার্ড দায়িত্বশীল শিক্ষাশিবিরে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। শাখা সভাপতি খালেদ মাহমুদের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী দাইয়ান সালেহিনের পরিচালনায় শিক্ষাশিবিরে আরো বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর জামায়াতের নায়েবে আমীর মাওলানা আব্দুল হালিম, সহকারী সেক্রেটারী সেলিম উদ্দিন ও শিবিরের কেন্দ্রীয় ছাত্র আন্দোলন সম্পাদক জাকির হোসেন সেলিম প্রমুখ।

শিবির সভাপতি বলেন, বাংলাদেশে আজ ছাত্রশিবিরের পক্ষে গণজোয়ার তৈরি হয়েছে। এই গণজোয়ার দেখে ভীত হয়ে বর্তমান অবৈধ সরকার নানাভাবে ছাত্রশিবিরকে দমাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। যার কারণেই দেশী-বিদেশী নানা ষড়যন্ত্র আমাদের সামনে দৃশ্যমান হচ্ছে। ধারাবাহিক গঠনমূলক কর্মসূচির মাধ্যমে বিরল নজির তৈরি করা এই সংগঠনকে সন্ত্রাসী প্রমান করতে সরকার উঠেপড়ে লেগেছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ ছাত্রশিবিরকে সঠিকভাবেই জানে ও চেনে। সরকারের পোষ্য কিছু গণমাধ্যম যখন শিবিরের নির্যাতিত নেতাকর্মীদের সন্ত্রাসী প্রমান করতে ব্যস্ত, তখন মানুষ দেখছে- সেই নির্যাতিত নেতাকর্মীদেরই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে দরিদ্র মেধাবী ছাত্রদের সহায়তায় এগিয়ে আসছে। সরকার যখন নিজের দায়িত্ব ভুলে ছাত্রশিবিরসহ বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে দমনে ব্যস্ত, তখন ছাত্রশিবির একের পর এক গঠনমূলক কর্মসূচির মাধ্যমে সর্বস্তরের মানুষের প্রিয় সংগঠনে পরিণত হয়েছে।

তিনি চলমান রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের কথা উল্লেখ করে বলেন, আমাদের প্রশ্ন, যে আওয়ামী সরকার রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের সর্বোচ্চ নজির স্থাপন করেছে, সেই সরকারের চেয়ে বড় সন্ত্রাসী আর কে হতে পারে? ছাত্রশিবির যে আদর্শের কথা বলে, সে আদর্শের সাথে সন্ত্রাসের দূরতম কোন সম্পর্ক নেই। ইসলামের সুমহান আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়েই শিবির নেতাকর্মীরা ছাত্রজনতাকে সাথে নিয়ে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস ও অপশাসনের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছে। আওয়ামী সরকার বেসামাল হয়ে নিজেদের সন্ত্রাসী কর্মকা- ঢাকতেই শিবিরের ওপর দোষারোপ করছে।

তিনি শিবিরের কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ছাত্রশিবিরের প্রতি দেশবাসীর অনেক প্রত্যাশা। এই প্রত্যাশা পূরণে আপনাদেরকেই এগিয়ে আসতে হবে। সততার সাথে পথ চলার পাশাপাশি নিজের মেধাকে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে হবে। জ্ঞানের রাজ্যে নিজেদের বিকশিত করার মাধ্যমে ইসলাম বিদ্বেষীদের সকল চক্রান্ত রুখে দিতে হবে। যোগ্য হিসেবে গড়ে তোলার মাধ্যমেই নিজেদেরকে দেশ-জাতির কল্যাণে কাজে লাগাতে হবে।

শিক্ষাশিবিরে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ছাত্র আন্দোলন সম্পাদক নুর মো. আবু তাহের, অর্থ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান ও অফিস সম্পাদক আতিকুর রহমান প্রমুখ।