বেনাপোলে সীমান্ত দিয়ে আসছে বানের পানির মতো অস্ত্র মাদক ও বিস্ফোরকদ্রব্য

bandarমোঃ আনিছুর রহমানঃ আন্তর্জাতিক সীমান্ত বেনাপোল পোর্ট থানার বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে সীমান্তের ঘাটমালিক ও আইনশৃংখলা বাহিনীর পরোক্ষও প্রত্যাক্ষ সহোযোগিতায় আসছে ভারত থেকে বানের পানির মতো আগ্নেয় অস্ত্র ও মাদকদ্রব্য।                                                              আইনশৃ ংখলা বাহিনীর সদস্যরা মাঝে মধ্যে অস্ত্র ও মাদকের দুই একটি চালান লোক দেখানোর জন্য আটক করলে ও অস্ত্র ব্যাবসায়ি ও অস্ত্র মাদক ব্যাবসায়িদের কোন সদস্যকে আটক করতে পারেনি। এ নিয়ে সীমান্ত এলাকার জনগন প্রশ্ন তুলছে আইনশৃংখলা রক্ষাকারি বাহিনীর সদস্যদের ও কথিত সীমান্তের ঘাটমালিকদের সহোযোগিতা ছাড়া অস্ত্র মাদক ভারত থেকে বাংলাদেশে আনা সম্ভব না।

বোনপোলের পুটখালি, ঘিবা, দৌলতপুর, গাতিপাড়া, সাদিপুর, রঘুনাথপুর, শিকারপুর, লক্ষনপুর ঘাট দিয়ে অস্ত্র ও মাদক চোরাচালানিরা ঘাটমালিক ও আইনশৃংখলা রক্ষাকারি সদস্যদের সুযোগমাতো ম্যানেজ করে ভারত থেকে নির্বিঘেœ নিয়ে আসছে পিস্তল, রিভলবর, এয়ারগান, গুলি, বোমা বানানোর বিস্ফোরক ও ফেনসিডিল, গাজা, স্পিরিট সহ নানা ব্রান্ডের মাদকদ্রব্য।                                                                                        বেনাপোল সীমান্তে বিজিবি র‌্যাব পুলিশ আরমস ব্যাটালিয়নের সদস্যরা সার্বোক্ষনিক সময়ে প্রহরা দিয়ে থাকা সত্বেও এসব অস্ত্র ও মাদক দ্রব্য বাংলাদেশে ভারত থেকে ঢুকছে। তাই সাধারন জনগন প্রশাশন ও আইনশৃংখলা রক্ষাকারি বাহিনীর সদস্যদের দিকে চোরা চালানিদের সহোযোগিতার ইঙ্গিত করছে।

আইনশৃংলা রক্ষাকারি বাহিনীর সদস্যরা দুই একটি চালানের সামান্য পরিমান অস্ত্র উদ্ধার করলে ও অস্ত্র চোরাচালানি ব্যাবসায়িদের ও মাদক ব্যাবসায়িদের আটক করতে না পারায় জনমানে নানা প্রশ্ন দানা বাধতে শুরু করেছে।

চলতি বছরের গত ৯ ফেব্রয়ার বোনপোলের  বারোপোতা গ্রামের মাঠ থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৫ টি এয়রগান উদ্ধার করলে ও কোন আসামি ধরতে পারে নাই বিজিবি। ২৫ ফেব্রুয়ারী বেনাপোলের পুটখালি থেকে ২ টি পিস্তল ২ রাইন্ড গুলি উদ্ধার করলে ও কোন আসামি ধরতে পারে নাই। ১ মার্চ বেনাপোলের পুটখালি থেকে বিজিবি সদস্যরা ২টি পিস্তল ১টি ওয়ান শুটারগান ৬ রাউন্ডগুলি ৪টি ম্যাগজিন উদ্ধার করলে ও ধরা পড়েনি কোন অস্ত্র চোরাচালানি। ৮ মার্চ বেনাপোলের ঘিবা গ্রাম থেকে যশোর র‌্যাব সাহেব আলীর  ছেলে আক্তার আলীর বাড়ি থেকে ১টি ৭.৬ এমএম পিস্তল ২রাউন্ড গুলি উদ্ধার করলে ও আসামি ধরতে পারে নাই।   বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ সম্প্র্রতি বোনপোলের ছোঁটআচড়া গ্রাম থেকে  ৯ মার্চ রিপন ও ইকরাম নামে দুই চিহ্নিত সন্ত্রাসীকে ১টি রিভলবর ও ২রাউন্ডগুলি সহ আটক করে চালান দিয়েছে। ১২ই মার্চ বেনাপোলের পাঠবাড়ি থেকে ১টি পিস্তল ৩ টি ম্যাগজিন ১ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে। তবে কোন অস্ত্রব্যাবসায়িকে আটক করতে পারে নাই।

একই ভাবে বেনাপোলের পুটখালি, দৌলতপুর , গাতিপাড়া  সাদিপুর সীমান্ত থেকে ফেনসিডিল,মদ, বিস্ফোরক, চকলেট বোমা, সহ যৌনউত্তেজক ট্যাবলেট মাঝে মধ্যে উদ্ধার করলে ও কোন অদৃশ্য কারনে আসামি ধরা পড়ে নাই।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক চোরাচালনি ব্যাবসায়িদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে বর্তমানে ক্ষমতাসীন দলের ছত্রছায়ায় থেকে কিছু অস্ত্র ব্যাবসায়িরা সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এরা বেনাপোলের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে অস্ত্র ও মাদক এনে দেশের বিভিন্ন জায়গায় নিবিঘেœ নিয়ে যাচ্ছে প্রশাশনের লোকের অলিখিত চুক্তির মাধ্যেমে।

এ ব্যাপারে বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মোশাররফ হোসেন জানান, বেনাপোল ব্যাপক এলাকা নিয়ে ভারতের সাথে সীমান্ত জুড়ে থাকায় শত ভাগ মাদক মুক্ত করা স্মভব হবে না বলে জানায় আর অস্ত্র মুক্ত হবে কিনা জানত চাইলে বলেন আমরা পুলিশ সহ এখানে সরকারের বিভিন্ন বাহিনী কাজ করি সবার ঐকান্তিক প্রচ্ষ্টো থাকলে সবই করা সম্ভব বলে তিনি জানান। তবে আমাদের সাথে এলাকার জনপ্রতিনিধী ও সাধারন লোকের ও সহোযোগিতা থাকতে হবে।