বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কে গলার কাঁটা তিস্তা

14793_bdindবিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : তিস্তার পানি বন্টন বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে তিক্ত ইস্যু হয়েই রয়ে যাবে। সমান পানি বন্টনের জন্য তিস্তা চুক্তির যে খসড়া করা হয়েছে তার বিরোধিতা করছে পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস সরকার। এই বিরোধিতার জন্যই তিস্তা চুক্তি নিয়ে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে এখন গলার কাঁটা হয়ে উঠেছে এই তিস্তা চুক্তি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া। খসড়া চুক্তিতে সমান পানি বন্টনের কথা বলা হলেও পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গে কৃষিকাজের জন্য আরও বেশি পানি চাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। এ নদী থেকে পানির প্রবাহ পরিবর্তন করে উত্তরবঙ্গে সেচকাজের জন্য ফিডার ক্যানালের মাধ্যমে নেয়া হয়েছে পানি। এতে বাংলাদেশে তিস্তায় পানির প্রবাহ কমে গেছে। কমে তা ‘ঐতিহাসিক সর্বনিম্ন’ প্রবাহ শতকরা ১০ ভাগে দাঁড়িয়েছে। এতে তীব্র অসন্তোষ বেড়েছে বাংলাদেশের কৃষক ও জেলেদের মধ্যে। গঙ্গা চুক্তি নিয়ে দু’দেশের যৌথ কমিশনের ৫৭তম বৈঠকে যোগ দিতে ভারতে রয়েছে বাংলাদেশের একটি প্রতিনিধি দল। এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন সাজ্জাদ হোসেন। তিনি মঙ্গলবার টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেছেন, যমুনার সঙ্গে তিস্তা মিলিত হওয়ার আগে তা প্রবাহিত হয়েছে রংপুরের ভিতর দিয়ে। সেই রংপুরের কৃষক ও জেলেরা প্রশাসনকে অচল করে দিয়েছেন। রংপুরে এ নদীতে ৫০০০ কিউসেক পানি প্রবাহিত হওয়ার রেকর্ড আছে। কিন্তু এর পরিবর্তে এখন প্রবাহিত হচ্ছে মাত্র ৫০০ কিউসেক পানি। এতে কৃষক মারাত্বকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তাদের ফসল শুকিয়ে যাচ্ছে। জেলেরা জীবিকা নির্বাহ করতে পারছে না। সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে তারা ক্ষোভ দেখাচ্ছে। এতে সেখানে প্রশাসন অচল হয়ে পড়েছে।