গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের ১১ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক কর্মচারীর বেতন-ভাতা বন্ধ

gaibandhaগাইবান্ধা,প্রতিনিধি ঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ১০টি কলেজ ও ১টি মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি পদ নিয়ে জটিলতা সৃষ্টির কারণে শিক্ষক-কর্মচারীরা বেতন-ভাতা উত্তোলন করতে পারছেন না। ফলে গত দু’মাস ধরে ভুক্তভোগী শিক্ষক-কর্মচারীরা পরিবার পরিজন নিয়ে সীমাহীন দুর্ভোগের মুখে পড়েছেন।ওইসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা গেছে, গভর্নিং বডি ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নিয়ে জটিলতা থাকায় নব নির্বাচিত স্থানীয় এমপি উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং সোনালী ব্যাংক লিমিটেড সুন্দরগঞ্জ শাখায় বেতন ভাতা ছাড় না করার জন্য নির্দেশ দেন। যার কারণে প্রশাসন ও ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ওই ১১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বেতন-ভাতার কাগজপত্রে স্বাক্ষর করেনি। কলেজগুলো হচ্ছে- সুন্দরগঞ্জ ডি.ডবি¬¬উ ডিগ্রী কলেজ, মহিলা ডিগ্রী কলেজ, বামনডাঙ্গা মহাবিদ্যালয়, বাজারপাড়া মহাবিদ্যালয়, শোভাগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ, ধর্মপুর আব্দুল জব্বার ডিগ্রী কলেজ, ধুবনী মহিলা কলেজ, ধুবনী ডিগ্রী কলেজ, কারিগরি মহাবিদ্যালয়, শিবরাম মো. হোসেন স্মৃতি স্কুল এন্ড কলেজ ও ভূরারঘাট এম ইউ সিনিয়র মাদ্রাসা।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান জানান, নব নির্বাচিত এমপির দেয়া কমিটি এখনও অনুমোদন না হওয়ায় তিনি বেতন ভাতা পরিশোধে আপত্তি জানিয়েছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু রাফা মোহাম্মদ আরিফ জানান- কমিটি সংক্রান্ত জটিলতা থাকায় কাগজপত্র যাচাই- বাছাই করে চুড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌছলে ওইসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা যথারীতি বেতন-ভাতা পাবেন।তবে সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান- কমিটি নিয়ে সৃষ্ট জটিলতা কেটে গেলে শিক্ষক-কর্মচারীরা বেতন-ভাতা পাবেন।ৃ