বিরামপুরে পৌর বিএনপির ৫জনকে বহিস্কার, নতুন কাউন্সিলের দাবী

BNP-06.03.14মোঃ মাহমুদুল হক মানিক : দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় থানা ও পৌর বিএনপির তৃনমূল নেতাকর্মীর উদ্যেগে বিরামপুর উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থীর পরাজয়ের কারন ব্যাখ্যা করে ৬ মার্চ বৃহস্পতিবার সন্ধায় দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে থানা ও পৌর বিএনপির ৫জনকে বহিস্কার করে নতুন কাউন্সিলের দাবী করেন।

এতে উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির কৃষি বিষয়ক সম্পাদক তোছাদ্দেক হোসেন তোসা, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক রেজাউল করিম রেজু,থানা বিএপির সহ-সভাপতি তালেব উদ্দিন,সাংগনিক সম্পাদক এ্যাড.একেএম মঞ্জুর রশীদ রতন, পৌর বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মহসিন আলী রাজু, পৌর যুব দলের সভাপতি নুরে আলম নূরা। এছাড়া ৭ ইউনিয়ন ও পৌর সভার ৯ ওয়ার্ডের সভাপতি সম্পাদকসহ অধিকাংশ নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, উপজেলা নির্বাচনের পরাজিত প্রার্থী মঞ্জুর এলাহী চৌধুরী রুবেল। ২৭ ফেব্রয়ারী বিরামপুর উপজেলা নির্বাচনে জেলা বিএনপি কতৃক তৃনমূলের উপস্থিত বক্তব্য ও কন্ঠ ভোটে বিরামপুর উপজেলা নির্বাচনে আমাকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে ঘোষনা করেন। কিন্ত থানা বিএনপির সভাপতি ও সম্পাদক গোপনে অধ্যাপক দবিরুল ইসলামকে আমার বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে দাড় করিয়ে দেয়। বিএনপির ২ প্রার্থীর মাঝে জামায়াত এককভাবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করে। বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী ও জামাতের প্রার্থী থাকায় বিএনপির মনোনীত প্রার্থী নির্বাচনে পরাজিত হয়েছি।

সাংগঠনিক ব্যর্থতা ও বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় থানা বিএনপি কমিটির সভাপতি, সাধারন সম্পাদক, সহ-সম্পাদক এবং পৌর বিএনপি কমিটির সাধারন সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদককে দল থেকে বহিস্কার করে নতুন কাউন্সিলের দাবী করেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জেলা বিএনপি’র প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক রেজাউল করিম রেজু জানান, তৃণমূল কর্মীসভা থেকে বিতর্কিতদের অবাঞ্চিত ঘোষনা করা হবে।