সাগর-রুনি হত্যা মামলা: তদন্ত কর্মকর্তার বক্তব্য অন্য বেঞ্চে

13805_sagor-runiবিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাবের এএসপি জাফর উল্লাহ আদালতের নির্দেশে আজ হাইকোর্টে হাজির হয়েছিলেন। কিন্তু শুনানির এখতিয়ার না থাকায় এ বিষয়টি কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। এসময় যে বেঞ্চের এ বিষয়ে শুনানির এখতিয়ার আছে, সেই বেঞ্চে তদন্ত কর্মকর্তাকে হাজির হতে এবং এ বিষয়ে শুনানি করতে পরামর্শ দিয়েছেন আদালত।
আজ সকালে বিচারপতি শওকত হোসেন ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চে হাজির হন জাফর উল্লাহ। এ সময় মামলার ফাইল না আসায় দুপুর দুইটার পরে শুনানির সময় ধার্য করেন আদালত। দুপুরে মামলার ফাইল আসার পর শুনানির এখতিয়ার না থাকায় তদন্ত কর্মকর্তা ও আসামিপক্ষকে ফিরিয়ে দেয়া হয়। আদালতে আসামিপক্ষে ছিলেন এসএম মাসুদ হোসেন দোলন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট গাজী মো. মামুনুর রশীদ।
আসামিপক্ষের আইনজীবী এসএম মাসুদ হোসেন দোলন সাংবাদিকদের বলেন, আমরা যে বেঞ্চের শুনানির শুনানির এখতিয়ার আছে, সেই বেঞ্চে বিষয়টি উত্থাপন করবো অথবা করণীয় সম্পর্কে জানতে প্রধান বিচারপতির কাছে যাবো।
গত ১৮ই ফেব্রুয়ারি এ তদন্ত কর্মকর্তাকে তলব করে হাইকোর্ট। সাগর-রুনি হত্যা মামলার ৩ আসামির জামিনের আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে মামলার তদন্তের অগ্রগতি না হওয়ায় সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে তলব করেন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ। তদন্ত কর্মকর্তাকে আজ হাইকোর্টে হাজির হয়ে মামলার তদন্তের অগ্রগতি জানাতে নির্দেশ দেয় আদালত। ইতোমধ্যে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এর চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ দেয়া হয়। এ কারণে আসামিপক্ষের আইনজীবী বিচারপতি শওকত হোসেন ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের আদালতে আবেদনটি উপস্থাপন করেন।