কক্সবাজার শেখ কামাল স্টেডিয়ামে প্রমিলা ক্রিকেটারদের নিয়ে টুর্ণামেন্ট শুরু হচ্ছে

imagesএম.শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার : কক্সবাজার সাগরপাড়ে নবনির্মিত শেখ কামাল আর্ন্তজাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ ৪মে শুরু হচ্ছে প্রমিলা (ওমেন) ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট। ইতোপূর্বে এই স্টেডিয়ামে ওয়ালটন জাতীয় ক্রিকেট লীগের ৪ দিনের ম্যাচ শেষ হয়। তবে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম উদ্বোধনের পরপরই বড় ধরণের ওমেন ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আসর বসছে আজ। আর বড় এ আসরের শুরুতে করা হয়েছে নানা অনিয়ম। ফলে সুশিল সমাজসহ মিডিয়ার লোকজন ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছে।

জানা গেছে, কক্সবাজার শেখ কামাল আর্ন্তজাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ ৪ মে ত্রিদেশীয় প্রমিলা ক্রিকেটারদের নিয়ে টুর্ণামেন্ট শুরু হচ্ছে। এই টুর্ণামেন্টে অংশ নিচ্ছেন স্বাগতিক বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল।

টুর্ণামেন্টে অংশ নিতে রবিবার বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল ও গতকাল সোমবার পাকিস্তানের প্রমিলা খেলোয়াড়রা কক্সবাজার পৌঁছেছেন। বিমান যোগে তারা কক্সবাজার পৌঁছলে তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান কক্সবাজারের পক্ষে ক্রীড়াপ্রেমি মানুষ। প্রমিলা ক্রিকেটারেরা কক্সবাজারের কলাতলী তারকামানের আবাসিক হোটেল ওশান প্যারাডাইস এ উঠেছেন।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) এর পরিচালক ও ওমেন্স উইং এর চেয়ারম্যান এমএ আওয়াল জানিয়েছেন, সোমবার পাকিস্তান জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল পৌঁছেছেন এবং আগামী ৭ মার্চ ভারতের জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল কক্সবাজার এসে পৌঁছবে।

তিনি আরো জানান, আজ মঙ্গলবার ৪ মার্চ সকাল ১০ টায় বাংলাদেশ ও পাকিস্তান জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের মধ্যে ওয়ানডে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্টিত হবে।  আগামী ৬ মার্চ সকাল ৯ টায় বাংলাদেশ ও পাকিস্তান মহিলা দলের মধ্যে ওয়ানডে, ৮ মার্চ দুপুর ১ টায় পাকিস্তান ও বাংলাদেশ মহিলা ক্রিকেট দলের মধ্যে টি-টুয়েন্টি ম্যাচ, ৯ মার্চ দুপুর ১ টায় বাংলাদেশ ও ভারত মহিলা ক্রিকেট দলের মধ্যে টি-টুয়েন্টি ম্যাচ, ১১ মার্চ দুপুর ১ টায় বাংলাদেশ বনাম ভারত টি-টুয়েন্টি ম্যাচ, ১৩ মার্চ দুপুর ১ টায় বাংলাদেশ বনাম ভারত টি-টুয়েন্টি ম্যাচ এবং ১৪ মার্চ দুপুর ১ টায় বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান মহিলা ক্রিকেট দলের মধ্যে টি-টুয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে, একটি ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট’ দিয়ে নতুন করে অভিষেক হচ্ছে সমুদ্র সৈকতের কোল ঘেষে ঝাউবিথীর পাশে মনোরম পরিবেশে গড়ে তোলা এই নান্দনিক শেখ কামাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

বাংলাদেশে অনুষ্ঠিতব্য টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ ক্রিকেট টুর্ণামেন্টের আগে এই ওমেন ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট অনুষ্ঠিত হওয়ার খবরে কক্সবাজার জেলার ক্রীড়াপ্রেমি মানুষের মনে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার সঞ্চার হয়েছে।

অপরদিকে, শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ওয়ালটন জাতীয় ক্রিকেট লীগের ৪ দিনের ম্যাচ শেষ হয়েছে। চট্টগ্রাম ও রংপুর বিভাগের মধ্যে অনুষ্ঠিত খেলা রোববার অমিমাংসিতভাবে (ড্র) শেষ করা হয়। ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে আরম্ভ হওয়া লীগের সমাপনি অনুষ্ঠান রবিবার বিকাল ৫ টায় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।

বিভিন্ন সুত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ-ভারত ও পাকিস্তানকে নিয়ে ৩ দেশের মধ্যে আজ থেকে ওমেন ক্রিকেটের আসর শুরু হচ্ছে। এ আয়োজন উপলক্ষ্যে দায়সারা ভাবে অনেকটা লুকোচুরির মতো ২ মার্চ একটি কথিত সংবাদ সম্মেলন করা হয়। যা প্রায় সাংবাদিকেরই অজানা। ওইদিন রাতে নামকা ওয়াস্তে একটি সংবাদ সম্মেলনের ছবিসহ খবর পত্রিকায় প্রেরণ করা হয়। যা কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত স্থানিয় ১৬টি পত্রিকার মধ্যে শুধুমাত্র ২/১টি পত্রিকায় প্রকাশিত হয়।

৪ মার্চ ওমেন ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরু হবে এ খবরে ক্রীড়া ভক্ত সাংবাদিকরা বিস্তারিত জানতে এবং গেইট পাস নিতে নব নির্মিত কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম’এ ৩ মার্চ বিভিন্ন সময়ে দেখা করতে গেলে বিড়ম্বনার শিকার হতে হয়। ক্রীড়া কর্তৃপক্ষ এখানে সাংবাদিকদের সাথে সৌজন্যতার পরিচয় দেননি। ওই বর্ণাঢ্য আসরের সংবাদ সংগ্রহের জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কক্সবাজার প্রতিনিধি মাহমুদুল করিম মাদুর সাথে অনেক সাংবাদিক ফোনে ও সরাসরি যোগাযোগ করলে তিনি সাফ-সাফ জানিয়ে দেন, সাংবাদিকদের সব সুযোগ-সুবিধা এবং গেইট পাস একজন সাংবাদিককে দেয়া হয়েছে। তার সাথে যোগাযোগ করে ওই পাস কার্ড সংগ্রহ করতে হবে। এর বাইরে আমার করার কিছু নেই।

ক্রীড়া সাংবাদিকরা অত্যন্ত ক্ষুদ্ধ হয়ে বলেন, গেইট পাস সাংবাদিকরা স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষ থেকেই সংগ্রহ করবে এটাই নিয়ম। কিন্ত অফিসিয়াল ভাবে গেইট পাস গুলো না রেখে এবং বিতরণ না করে একজন ব্যক্তিকে কিভাবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। যা চরম অনিয়ম। এর ফলে নতুন এ আর্ন্তজাতিক স্টেডিয়াম এবং বিসিবি কর্তৃপক্ষের ভাবমুর্তি চরম ভাবে ক্ষুন্ন হবে।