মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনায় পুলিশ সদস্য সাময়িক বরখাস্ত

imagesমানিকগঞ্জ  সংবাদদাতা ঃ
মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনায় হেমায়েত (৩৫) নামের এক পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সে হরিরামপুর থানায় কর্মরত ছিল।
স্থানীয় সূত্র জানায়, আজ  শনিবার সন্ধ্যার দিকে কনেষ্টেবল হেমায়েত উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের চতুর্থ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। পরে মেয়েটির চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এলে সে পালিয়ে যায়। পুলিশ সদস্য হেমায়েত ওই শিশুটির গ্রামে প্রায়ই হাটতে যেতেন।  শনিবার সন্ধ্যার পর   বাড়ি ফাঁকা পেয়ে সে মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

সহকারী পুলিশ সুপার (মানিকগঞ্জ সদর সার্কেল) কামরুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত  মেয়েটির পরিবারের পক্ষ থেকে কোন লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে ওই পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে বলে তিনি স্বীকার করেছেন।

হরিরামপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবুল বাশার সবুজ জানান, মেয়েটিকে ধর্ষনের চেস্টার করে পুলিশ সদস্য।  ধর্ষণ করতে না পেরে মেয়েটির মুখোমন্ডল কামরিয়ে খত করে। মেয়েটি চিৎকারে স্থানীয় লোকজন আসার সাথে সাথে পুলিশ সদস্য হেমায়েত পালিয়ে যায়। বিষয়টি হরিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)কে অবগত করার পর রাতেই ঘটনাস্থলে যান তিনি। এর পর স্থানীয় লোকজন পুলিশ সদস্যের বিচার চাইলে ওসি সুষ্ঠ বিচারের আশ্বাস দিয়ে গ্রামবাসীকে শান্ত করেন।
হরিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শওকত আলীকে সদস্য হেমায়েতকে সাময়িক বরখাস্তের কারন জিজ্ঞাসা করা হলে  তিনি জানান, এই হুমুর্তে কিছু বলতে পারবো না।
এদিকে জানা গেছে, এব্যাপারের কোন মামলা বা লিখিত অভিযোগ না দেওয়ার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে ওই পরিবারকে চাপ প্রয়োগ করা হয়েছে।