বিচারবহির্ভুত হত্যার প্রমাণ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা : আইনমন্ত্রী

19176_anisul hoq low ministrবিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : বিচারবহির্ভুত হত্যাকাণ্ডের প্রমাণ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, সরকার আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বদ্ধপরিকর। দেশে কোন বিচারবহির্ভুত হতে দেবেনা সরকার। এ ধরণের হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে সরকারের অবস্থান কঠোর।
রোববার আইনমন্ত্রীর সচিবালয়স্থ কার্যালয়ে একইসাথে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) রাষ্ট্রদূত উইলিয়াম হানা এবং ইইউভূক্ত রাষ্ট্র ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত মিচেল ট্রিঙ্কাইয়ার ও সুইডেনের রাষ্ট্রদূত এ্যানেলি লিন্ডাল কেনি এর সাথে সাাৎকালে আইনমন্ত্রী এ ব্যাপারে আশ্বস্ত করেছেন। আইনমন্ত্রী বৈঠক পরবর্তী সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা জানান। বৈঠকে বিচারবহির্ভুত হত্যা, মৃত্যুদন্ডের শাস্তি বিলোপসহ মানবাধিকার সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলে তিনি জানান।
ব্রিফিংকালে আইনমন্ত্রী জানান, বিচারবহির্ভুত হত্যা নিয়ে অনেক রকম কথা হচ্ছে। বিভিন্ন   পত্র-পত্রিকায় বিচারবহির্ভুত হত্যা নিয়ে রিপোর্ট আসছে। আইন-শৃংখলা বাহিনীকে এসব বিষয় অনুসন্ধানের জন্য বলা হয়েছে। বিচারবহির্ভুত হত্যার নজির পাওয়া গেলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
তিনি বলেন, মৃত্যুদণ্ডের শাস্তি বিলোপের ব্যাপারে আমি রাষ্ট্রদূতদের বলেছি যুদ্ধাপরাধ ও মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের সাথে সংশ্লিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ (ট্রাইব্যুনালস) আইনে মৃত্যুদণ্ডের বিধান আছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার সময় যেসব নির্মম হত্যাকাণ্ড ও  অন্যান্য অপরাধ সংঘটিত হয়েছে তার একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদণ্ডই হতে পারে। মুক্তিযুদ্ধকালে   সংঘটিত যুদ্ধাপরাধ ও মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িতদের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ডের সাথে কোন আপস করা হবেনা। রাষ্ট্রপ তাদের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ডই চাইবে। এসব অপরাধ ছাড়া অন্যান্য েেত্র মৃত্যুদণ্ডের শাস্তির ব্যাপারে ভবিষ্যতে চিন্তা-ভাবনা করা হবে বলে রাষ্ট্রদূতদের জানিয়েছেন বলে তিনি ব্রিফিংয়ে উল্লেখ করেন। বিভিন্ন দলের অংশগ্রহণে চলমান উপজেলা নির্বাচনের ব্যাপারে রাষ্ট্রদূতরা বৈঠকে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বলে ব্রিফিংয়ে তিনি উল্লেখ করেন।