5

৫৭ ধারা বাতিলের দাবি ঢাবি সাংবাদিক সমিতির

বিডি রিপোর্ট 24 ডটকম :  তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের ৫৭ ধারা বাতিলের দাবি জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি। একই সঙ্গে এ আইনে সর্বশেষ যমুনা টেলিভিশনের জৈষ্ঠ্য প্রতিবেদক ও সমিতির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হোসাইনসহ সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সকল মামলা প্রত্যাহারেরও দাবি জানানও হয়। শনিবার সন্ধ্যায় সমিতির সভাপতি ফরহাদ উদ্দীন ও সাধারণ সম্পাদক ফররুখ মাহমুদ এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আইন প্রণয়ন করা হয় মানুষের অধিকার সুরক্ষা, নিপীড়িত, নির্যাতিত, নিগৃহীত ও নিষ্পেষিত মানুষের পাশে দাঁড়ানো এবং শোষকের হাত থেকে শোষিতকে রক্ষার জন্য। অথচ বর্তমানে অনেক ক্ষেত্রেই তার উল্টোটা পরিলক্ষিত হচ্ছে। কখনও আইন প্রণয়নে ‘অস্বচ্ছতা’কে কাজে লাগিয়ে আবার কখনও আইনের ‘অপব্যবহার’-এর মাধ্যমে একটি মহল সাধারণ মানুষকে হয়রানি করছে। এ হয়রানি থেকে বাদ যাচ্ছে না দেশের কৃতি গণমাধ্যম কর্মীরাও। নেতৃদ্বয় বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি আইনটি সংশোধন করে ২০১৩ সালে জাতীয় সংসদে পাস হওয়ার পর থেকে সমোলাচনা শুরু হয়। কেননা, এ আইনে পুলিশকে সরাসরি মামলা করার ও পরোয়ানা ছাড়া গ্রেপ্তারের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। মানবাধিকারকর্মী ও সংবাদকর্মী ছাড়াও অনলাইন ব্যবহারকারীদের শঙ্কা ছিল-এ আইনের অপব্যবহার হতে পারে। সেই শঙ্কাই সত্য হয়েছে। যার শিকার হয়েছেন মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সন্তান সাংবাদিক প্রবীর সিকদারসহ আরও অনেকে। তারা বলেন, গত ২রা মে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ঘোষণা দিয়েছেন- তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের ৫৭ ধারা থাকছে না। কিন্তু এখনও এ ঘোষণার বাস্তবায়ন দেখছি না। গণতান্ত্রিক এ দেশে সুশাসন নিশ্চিত করতে এ আইনটি অবশ্যই বাতিল করতে হবে।