1

বনানীতে দুই তরুণী ধর্ষণ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী সাফাত-সাকিফের, নাঈম ৭ দিনের রিমান্ডে

বিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : বনানীর দ্য রেইনট্রি হোটেলে দুই তরুণী ধর্ষণ মামলার আসামি সাফাত আহমদ ও সাদমান সাকিফকে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে তারা এই জবানবন্দি দেন। পরে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। এদিকে মামলার অন্যতম আসামি নাঈমের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। পুলিশের দশ দিনের রিমান্ড আবেদনের  প্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম এস এম মাসুদ জামান আসামি নাঈমের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
ঢাকা মহানগর পুলিশের অপরাধ ও তথ্য বিভাগের জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার মিরাশ উদ্দিন জানান, বনানীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগের মামলায় সাফাত ও সাকিফ স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। ঢাকার মহানগর হাকিম আহসান হাবিব আসামি শাফাত আহমেদের জবানবন্দি রেকর্ড করেন। আর সাদমান সাকিফের জবানবন্দি রেকর্ড করেন মহানগর হাকিম ছাব্বির ইয়াসির আহসান চৌধুরী।
এর আগে পুলিশের পক্ষ থেকে শাফাত ও সাকিফকে আদালতে হাজির করে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন।
এদিকে সাদমানের পাঁচ দিনের রিমান্ড আজ এবং সাফাতের ছয়দিনের রিমান্ড শুক্রবার শেষ হবে। এ মামলার অপর আসামি নাঈম আশরাফকে বুধবার রাতে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং থেকে গ্রেপ্তার করে ডিবি পুলিশ। তার ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।
ধর্ষণের অভিযোগ এনে গত ৬ মে বনানী থানায় সাফাত আহমদ, নাঈম আশরাফসহ পাঁচজনকে আসামি করে একটি মামলা করেন দুই তরুণী। ধর্ষণ মামলার বাকি আসামিরা হলো সাদমান সাকিফ, সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও দেহরক্ষী আবুল কালাম আজাদ। গত ১১ মে এই মামলার পাঁচ আসামির মধ্যে সাফাত আহমেদ ও সাদমান সাকিফকে সিলেট থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর ১৫ মে রাজধানীর নবাবপুর ও গুলশান থেকে সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও দেহরক্ষী রহমত আলী ওরফে আবুল কালাম আজাদকে গ্রেপ্তার করা হয়।