manikgonj-10-05-ministar

নৌকায় ভোট দিয়ে স্বাধীনতাকে রক্ষা করতে হবে : মোজাম্মেল হক

মানিকগঞ্জ সংবাদদাতা     :
মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা  আ.খ.ম মোজাম্মেল হক এম.পি বলেছেন-জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর মুক্তিযোদ্ধাদের কোন সরকার খোজ খবর রাখেনি । এমন এক সময় ছিল মুক্তিযোদ্ধা ভাইরা   পরিচয় দিতে ভয় পেতো । আর বর্তমান সরকারের প্রধান মন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা  দেশ রতœ শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ভাতা,অসছল মুক্তিযোদ্ধাদের পাকা বাড়ি তৈরী করে দিয়েছে । মন্ত্রী আরো বলেন-এবছর থেকে প্রত্যেক উপজেলায় ১০ জন দরিদ্র ও অসছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সরকারী ভাবে বাসভবন  এবং কোয়াটার নির্মাণ করে দেওয়া হবে । মন্ত্রী আরো বলেন-ভারতের  প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সাথে তিস্তা নদীর পানি চুক্তি হয়েছে, আমাদের সরকারের দেড় বছর মেয়াদের মধ্যে  তিস্তা  চুক্তি বাস্তায়ন হবে , ৭০ সালে নৌকায় ভোট দিয়ে  দেশ স্বাধীন করেছি এবার নৌকায় ভোট দিয়ে স্বাধীনতাকে রক্ষা করতে হবে । মুক্তিযোদ্ধারা দেশ স্বাধীন হয়েছে বলেই  আমরা মন্ত্রী,এম.পি ও মেজর জেনারেল ,অনেকে সচিব সরকারী কর্মকর্তা হয়েছে । সকল মুক্তিযোদ্ধাদের ছেলে-মেয়ে আত্মীয় স্বজন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী না,বাংলাদেশ জিন্দাবাদে বিশ্বাসী এদিকে খেয়াল রাখার জন্য অনুরোধ জানান । মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিটি ক্ষেত্রে কোটা ভিত্তিক চাকরী, যেকোন সরকারী অফিসে গেলে বসার জন্য আলাদা ভাবে স্থান করে দেওয়ার সরকারী সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে অতিদ্রুত এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হবে । মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রানালয়ের ওয়েব সাইডে মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকাসহ সকল ধরনে তথ্য পাওয়া যাবে ।সরকারী ভাবে মন্ত্রানালয় থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের পরিচয় পত্র দেওয়া হবে ।
মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী  বুধবার দুপুরে মানিকগঞ্জের দৌলতপুর থানা সংলগ্ন মেইন রোডের পাশে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের  ১ কোটি ৯৮ লক্ষ ৪৪ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত তিন তলা নতুন ভবনের ভিত্তি প্রস্তুর স্থাপন করেন । ভিত্তি প্রস্তুর স্থাপন শেষে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মুক্তিযোদ্ধাদের এক মতবিনিময় সভায়  মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা  আ.খ.ম মোজাম্মেল হক এম.পি প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথাগুলো বলেছেন । উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের এর সভাপতিত্বে  বক্তব্য রাখেন-মানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক এ.এম নাঈমুর রহমান দুর্জয়,জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড গোলাম মহীউদ্দীন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও জজ কোর্টের পি.পি এ্যাড: আব্দুস ছালাম । এছাড়া উপস্থিত ছিলেন- সাবেক  সংসদ সদস্য এ.বি.এম আনোয়ারুল হক,এলজিইডির প্রকল্প পরিচালক আব্দুল হাকিম,নির্বাহী প্রকৌশলী মো:আব্দুল বারেক হাওলাদার, উপজেলা চেয়ারম্যান মো: তোজাম্মেল হক তোজা,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা,জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার তোবারক হোসেন লুড,জি.পি এ্যাড:মেহের উদ্দিন, উপজেলা প্রকৌশলী মো: আব্দুল বারেক মন্ডল,উপজেলা আওযামীলীগের সাধারন সম্পাদক আ: কদ্দুস প্রমূখ।