14

গাছের পাতা খেয়ে ২৫ বছর, স্পর্শ করেনি কোনো রোগ

বিডি রিপোর্ট 24 ডটকম : গাছের পাতা, ছাল-বাকল খেয়ে ২৫ বছর বেঁচে আছেন পাকিস্তানের মেহমুদ ভাট (৫০)। এ সময়ে তিনি কোনো রোগে আক্রান্ত হন নি। তার বাড়ি পাঞ্জাব প্রদেশের গুজরানওয়ালা জেলায়। এ খবর দিয়েছে পাকিস্তানের অনলাইন দ্য নিউজ। এতে বলা হয়, যখন তার বয়স ২৫ বছর তখন কোনো কাজ পাচ্ছিলেন না মেহমুদ। ফলে নিত্যদিনের খাবারের যোগাড় করা তার পক্ষে সম্ভব ছিল না। তাই ওই বয়সেই তিনি গাছের পাতা খাওয়া শুরু করেন। মেহমুদ নিজেই বলেন, আমার পরিবারে তখন ভয়াবহ দারিদ্র্য। সবকিছু সীমা ছাড়িয়ে গিয়েছিল। একবেলা খাবার পাওয়া আমার জন্য অত্যন্ত কঠিন হয়ে পড়েছিল। তাই আমি ভাবলাম, রাস্তায় ভিক্ষা করার চেয়ে গাছগাছালির ওপর ভর করে জীবন চালিয়ে নেয়া ভাল। ফলে নরম গাছ ও গাছের পাতা খাওয়া শুরু করলাম। এখন তো এগুলো খাওয়া আমার অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। উল্লেখ্য, বেশ কয়েক বছর পরে তিনি কাজ খুঁজে পান। খাবারের যোগাড় করতেও সক্ষম হন। কিন্তু নিজের মধ্যে যে অস্বাভাবিক অভ্যাস গড়ে উঠেছে তা থেকে তিনি বেরিয়ে আসতে পারেন নি। তিনি এখন তার গাধায় টানা গাড়িতে করে মালামাল এক স্থান থেকে অন্যস্থানে নিয়ে দিনে প্রায় ৬০০ রুপি উপার্জন করেন। তবে অন্যরা যে স্বাভাবিক খাবার খায় তিনি সেগুলো খান না। তিনি তা এড়িয়ে বেছে নেন গাছের পাতা, ছাল-বাকল, নরম গাছ। অশত্থু গাছ সহ আরো কিছু গাছ তার প্রিয়। তার এক প্রতিবেশী গোলাম মোহাম্মদ বলেছেন, তাকে কখনো ডাক্তার বা হাসপাতালে যেতে হয় নি। এতটা বছর গাছের ওপর নির্ভর করে বেঁচে থাকা একজন মানুষ কিভাবে এতটা সুস্থ থাকে তা ভেবে আমরা বিস্মিত হই। যেকোন সময় তিনি রাস্তায় চলতে চলতে হঠাৎ তার গাড়ি থামিয়ে দেন। গাছ থেকে ছিড়ে টাটকা পাতা খেয়ে নেন। তার এ অভ্যাসের জন্য নিজের এলাকায় খুব সুপরিচিতি পেয়েছেন মেহমুদ।